শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ০১:৪৬

ফিটনেসবিহীন গাড়ি: রাস্তায় নামতে দেওয়া যায় না

Published : 2017-06-09 22:00:00
প্রতি বছরই ঈদে নিরাপদে বাড়ি ফেরা নিয়ে শঙ্কায় থাকে রাজধানীবাসী। ঈদের আগে ও পরে ঘরমুখো মানুষের চাপ অনেক বেড়ে যাওয়ায় পরিবহন সঙ্কট দেখা দেয়। এই সুযোগে ফিটনেসবিহীন গাড়ি যাত্রী বহনের জন্য রাস্তায় নামানো হয়। ঢাকা শহরে বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী ফিটনেসবিহীন লক্কড়ঝক্কড় বাসগুলো এবারও মহাসড়কে নামানোর প্রস্তুতি চলছে। ফিটনেসবিহীন এসব গাড়ি ঈদে নিরাপদ যাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করবে, সে আশঙ্কা এবারও থেকেই যাচ্ছে।
সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ ফিটনেসবিহীন গাড়ি। তা ছাড়া এসব গাড়ি বিকল হয়ে রাস্তায় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি করে। ঈদকে কেন্দ্র করে বাড়তি যাত্রী ও অন্যান্য গাড়িতে বেশি ভাড়ার কারণে ঝুঁকিপূর্ণ জেনেও স্বল্প আয়ের মানুষেরা একরকম বাধ্য হয়ে এসব গাড়িতে যাত্রা করে। কিন্তু গাড়ির সঙ্কটকে অজুহাত করে ফিটনেসবিহীন এসব গাড়িকে রাস্তায় নামতে দেওয়া যায় না। ঈদকে সামনে রেখে বাড়তি গাড়ির বিষয়টি সরকারকে আগে থেকেই মাথায় রাখতে হবে। যাত্রীদের চাহিদা অনুযায়ী পর্যাপ্ত গাড়ির ব্যবস্থা করতে হবে যেন নির্ধারিত ভাড়া দিয়েই মানুষ নিরাপদে ভালো গাড়িতে বাড়ি ফিরতে পারে।
ঈদ উপলক্ষে যাতে ফিটনেসবিহীন এ ধরনের যানবাহন রাস্তায় নামতে না পারে সেজন্য আগামীকাল বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) পক্ষ থেকে মিটিং ডাকা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ বলছে, ফিটনেসবিহীন লক্কড়ঝক্কড় বাসের ব্যাপারে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। ফিটনেসবিহীন গাড়ি রঙচঙ করে রাস্তায় নামালে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিন্ত এসব যে কথার কথা তা রাস্তায় ফিটনেসবিহীন গাড়ির দাপট দেখলেই বোঝা যায়। অন্যদিকে এই সময় অনভিজ্ঞ চালকের সংখ্যাও বেড়ে যায়। আর তাদের বেশিরভাগই ওইসব ফিটনেসবিহীন গাড়ির চালকের আসনে বসে যায়। কিন্তু এ কথা বুঝতে কষ্ট হওয়ার কথা নয়, মহাসড়কে ফিটনেসবিহীন গাড়ি ও অদক্ষ চালক মানুষের প্রাণহানির জন্য যথেষ্ট। আর এসব কারণে ঈদের খুশির যাত্রা কোনো কোনো পরিবারের জন্য সারা জীবনের কান্না হয়ে থাকে। অভিযোগ রয়েছে, এসব ফিটনেসবিহীন গাড়ি মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়ালেও বিআরটিএ ও প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা তা দেখেও না দেখার ভান করেন। রাস্তায় ফিটনেসবিহীন গাড়ি নিয়ে প্রশাসন ও ওইসব গাড়ির মালিকদের ইঁদুর-বেড়াল খেলা প্রায়ই দেখা যায়। কিন্তু এবারের ঈদযাত্রাকে নিরাপদ করতে এই খেলা বন্ধ করার এখনই সময়।
যেসব কারখানায় ফিটনেসবিহীন গাড়িকে রঙচঙ করে রাস্তায় নামানোর কাজ চলছে, সেখানে গিয়ে তা বন্ধ করুন। এক্ষেত্রে আইনের যথাযথ প্রয়োগ না করলেই নয়; তা না হলে পরে এসব গাড়িকে রাস্তা থেকে সহজে তুলে দেওয়া যাবে না। যার ফলে প্রতিনিয়ত সড়ক দুর্ঘটনা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রাণহানিও বাড়তে থাকবে। ঈদকে সামনে রেখে মহাসড়কে যেন কোনো ফিটনেসবিহীন গাড়ি নামতে না পারে, সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।