শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, সকাল ০৯:৫৭

ঐতিহাসিক টেস্টে বাংলাদেশের স্মরণীয় জয়

কলম্বো টেস্ট

Published : 2017-03-19 11:57:00

অনলাইন প্রতিবেদক : কলম্বো টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে স্মরণীয় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এ জয়ের মধ্যদিয়ে বিদেশের মাটিতে টেস্টে দ্বিতীয়বারের মতো জয় পেল টাইগাররা। এর আগে ২০০৯ সাালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে জয় পায় বাংলাদেশ। রোববার (১৯ মার্চ) লঙ্কানদের বিরুদ্ধে জয় পেতে ১৯১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৫৭ ওভার ৫ বলে ৬ উইকেট হারিয়ে মুশফিক বাহিনীর সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৯১ রান। ফলে ৪ উইকেটে জয় পায় বাংলাদেশ। 

শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ প্রথম ইনিংসে ৩৩৮/১০, দ্বিতীয় ইনিংসে ৩১৯/১০। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ প্রথম ইনিংসে ৪৬৭/১০ দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯১/৬।

বাংলাদেশের পক্ষে ওপেনিংয়ে নামেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। হেরাথের করা ইনিংসের নবম ওভারে পঞ্চম বলে থারাঙ্গাকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন সৌম্য। ফেরার আগে ২৬ বলে ১০ রান আসে তার ব্যাট থেকে। এরপর ব্যাট হাতে নেমে হেরাথের বলে গুনারত্নের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ইমরুল কায়েস। তিনি কোনো রান করতে পারেননি। তামিমের সঙ্গে এরপর জুটি বাধেন সাব্বির রহমান। তামিম দলীয় ১৩১ রানের মাথায় পেরেরার বলে চান্দিমালকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন। তিনি ১২৫ বল মোকাবেলা করে রান করেন ৮২।  পরে সাব্বিরের সঙ্গে জুটিতে নামেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এরপর দলীয় ১৪৩ রানে পেরেরার বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফেরেন সাব্বির। তার সংগ্রহ ৪১ (৭৬)। এরপর সাকিবের সঙ্গে জুটি গড়েন বাংলাদেশের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। সাকিবের সংগ্রহ ৪৪ বলে ১৫ রান। মুশফিক ২২ রানে অপরাজিত থাকেন।

টেস্টের পঞ্চম দিনে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদশে ও শ্রীলঙ্কা। রোববার (১৯ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টায় পি সারা ওভালে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে লঙ্কানরা ১১৩ ওভার ২ বলে সবগুলো উইকেট হারায়। বিপরীতে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩১৯ রান। লিড নেয় ১৯০ রানের। ফলে এ টেস্টে জিততে হলে টাইগারদের সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ১৯১ রান।

পঞ্চম দিনের শুরুতেই আক্রমণাত্মক খেলেন লঙ্কান দুই টেইলঅর্ডার ব্যাটসম্যান লাকমাল ও দিলরুয়ান পেরেরা। তাদের দারুণ সূচনায় দিনের শুরতেই ১৫০ ছাড়ায় লিড। দলীয় ৩১৮ রানে ব্যক্তিগত ৪২ রানে রানআউট হয়ে সাজঘরে ফিরেন পেরেরা। এরপর ১১৩ ওভার ২ বলে দলীয় ৩১৯ রানে সাকিব আল হাসানের বলে মুসাদ্দেককে ক্যাচ দিয়ে লাকমালের সাজঘরে ফেরার মধ্যদিয়ে লঙ্কানদের সবগুলো উইকেটের পতন হয়।