বুধবার ১৭ জানুয়ারি, ২০১৮, সন্ধ্যা ০৭:১০

আবহাওয়াবিদ হতে চাইলে

ক্যারিয়ার

Published : 2017-06-08 16:55:00
একজন আবহাওয়াবিদের প্রধান কাজ হচ্ছে আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ, বিশ্লেষণ এবং পূর্বাভাস প্রদান করা। আবহাওয়াবিদ আবহাওয়ার পূর্বাভাস সম্পর্কিত বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন। বাতাসের চাপ, তাপমাত্রা, আর্দ্রতা, বায়ুপ্রবাহের গতিবেগ, ওজোনস্তর প্রভৃতি বিষয়ের অবস্থা পর্যবেক্ষণ, বিশ্লেষণ, পূর্বাভাস এবং বায়ুমণ্ডলের বিভিন্ন রকম গবেষণামূলক কাজ সাধারণত ফিজিসিস্ট, ম্যাথমেটিশিয়ান, কেমিস্ট, ইঞ্জিনিয়ার, ফিজিওগ্রাফার, ওশোনোগ্রাফার, হাউড্রোলজিস্ট, হাইড্রোডাইনামিসিস্ট, রেডিওমিটারিস্ট, স্ট্যাটিসটিকস ও অ্যাস্ট্রো ফিজিওসিস্টের সমন্বিত প্রচেষ্টায় সম্পন্ন হয়ে থাকে। মূলত একজন আবহাওয়াবিদের মধ্যে এসবের সমন্বয় থাকতে হবে। এসব নিয়ে লিখেছেন সঞ্চয়িতা রায়

কাজের সুযোগ
আমাদের দেশে আবহাওয়াবিদদের চাকরি এখনও সরকারি অফিসেই সীমাবদ্ধ। বিদেশি অনেক সংস্থা বেসরকারিভাবে আবহাওয়াবিদ নিয়োগ দিয়ে থাকে। কারণ যেকোনো অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডই আবহাওয়ার ওপর নির্ভরশীল। যেহেতু আমাদের দেশে আবহাওয়া অধিদফতরে প্রথমে সহকারী আবহাওয়াবিদ হিসেবে যোগদান করতে হয় সেহেতু পেশাজীবনের শুরুতে একজন আবহাওয়াবিদ বাংলাদেশ সরকারের প্রণীত বেতন স্কেল অনুযায়ী প্রথম শ্রেণির গেজেটেড অফিসারের সম্মানী পেয়ে থাকেন।

পড়াশোনা
আবহাওয়াবিজ্ঞানে আলাদা কোনো কোর্স আমাদের দেশে নেই। তবে এ বিষয়ের ওপর কোর্স চালুর প্রক্রিয়া চলছে। আমাদের দেশে বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে গণিত ও পদার্থবিজ্ঞান বিষয়ে বিএসসি কোর্স চালু আছে। আবহাওয়াবিদ হতে চাইলে গণিত ও পদার্থবিজ্ঞান বিষয়ে বিএসসি ডিগ্রিধারী হতে হবে। সঙ্গে পরিসংখ্যান বিষয়টিও জানতে হবে।

পেশায় সফল হতে হলে
এ পেশায় সফল হওয়ার প্রধান শর্তই হচ্ছে বেসিক এডুকেশন অর্থাত্ ফিজিক্স এবং ম্যাথমেটিকসের সঙ্গে পরিসংখ্যান বিষয়ে ভালো দখল থাকা। এছাড়া আন্তর্জাতিক মানের আবহাওয়াবিদ হতে হলে গতানুগতিক অফিস ডিউটির বাইরেও তাকে কিছু কাজ করতে হবে। যেমন-খুব ভালো পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ ক্ষমতা থাকতে হবে। বায়ুমণ্ডল সম্পর্কে জানতে হবে। ভৌগোলিক জ্ঞানসম্পন্ন হতে হবে এবং ভৌত বিষয়াবলিও জানতে হবে।

জেনে নেওয়া যাক আবহাওয়া সতর্কীকরণ সঙ্কেত
১নং দূরবর্তী সতর্ক সংকেত : দূরবর্তী এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বইছে। বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৬১ কি.মি. যা সামুদ্রিক ঝড়ে পরিণত হতে পারে।
২নং দূরবর্তী হুশিয়ারি সঙ্কেত : গভীর সাগরে ঝড় সৃষ্টি হয়েছে। বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২-৬৮ কি.মি.। বন্দর এখনই ঝড়ে কবলিত হবে না।
৩নং স্থানীয় সতর্ক সঙ্কেত : বন্দরে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। ঘূর্ণি হাওয়ার একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০-৫০ কি.মি.।
৪নং হুশিয়ারি সঙ্কেত : বন্দর ঘূর্ণিঝড় কবলিত। তবে ঘূর্ণিঝড়ের চূড়ান্ত প্রস্তুতি নেওয়ার মতো বিপজ্জনক সময় এখনও হয়নি।
৫নং বিপদ সঙ্কেত : বন্দর ছোট বা মাঝারি তীব্রতার সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে নিপতিত। ঝড়টি বন্দরকে বাম দিকে রেখে উপকূল অতিক্রম করতে পারে।
৬নং বিপদ সঙ্কেত : বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ৬২-৮৮ কি.মি.। ঝড়টি বন্দরকে ডান দিকে রেখে উপকূল অতিক্রম করতে পারে।   
৭নং বিপদ সঙ্কেত : বন্দর ছোট বা মাঝারি তীব্রতার ঝঞ্ঝাবহুল সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে নিপতিত। ঝড়টি বন্দরের ওপর বা নিকট দিয়ে উপকূল অতিক্রম করতে পারে।
৮নং মহাবিপদ সঙ্কেত : বন্দর প্রচণ্ড তীব্রতার ঝঞ্ঝাবিক্ষুব্ধ এক সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়তে পারে। বাতাসের একটানা গতিবেগ ৮৯ কি.মি. বা তার ঊর্ধ্বেও হতে পারে।
৯নং মহাবিপদ সঙ্কেত : বন্দর প্রচণ্ড তীব্রতার ঝঞ্ঝাবিক্ষুব্ধ এক সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে নিপতিত। বাতাসের একটানা গতিবেগ ৮৯ কি.মি. বা তারও ঊর্ধ্বে হতে পারে।
১০নং মহাবিপদ সঙ্কেত : বন্দর সর্বোচ্চ তীব্রতার ঝঞ্ঝাবিক্ষুব্ধ সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে নিপতিত। ঝড়টি বন্দরের ওপর বা নিকট দিয়ে উপকূল অতিক্রম করবে।
১১নং যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন সঙ্কেত : আবহাওয়ার বিপদ সঙ্কেত প্রদানকারী কেন্দ্রের সঙ্গে সকল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। আবহাওয়া অত্যন্ত দুর্যোগপূর্ণ।