সোমবার ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, রাত ০৩:০৭

সম্মিলিত উদ্যোগে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে: প্রধান বিচারপতি

Published : 2017-05-19 22:59:00, Count : 77
চট্টগ্রাম ব্যুরো: ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বাহাত্তরের সংবিধানে প্রতিটি ধর্ম ও মতের মানুষের সমান অধিকার নিশ্চিত হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। গতকাল চট্টগ্রামের বাঁশখালী ঋষিধামে আধুনিক নির্মাণশৈলীতে নির্মিত শ্রীগুরু মন্দিরের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন তিনি।
প্রধান বিচারপতি বলেন, জাতিধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সম্মিলিত উদ্যোগে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত এদেশে সাম্প্রদায়িকতার সুযোগ নেই।
প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, পৃথিবীতে যখন অনাচার বেড়ে যায় তখন মানবমুক্তির লক্ষ্যে আধ্যাত্মিক মহাপুরুষরা অবতীর্ণ হন। তারা মানুষে মানুষে ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রত করার শিক্ষা দেন। অদ্বৈতানন্দ পুরী মহারাজের মতো মহাপুরুষরা মানবমুক্তির জন্য এ পৃথিবীতে এসেছিলেন।
তিনি বলেন, স্বামী অদ্বৈতানন্দ পুরী মহারাজ আজীবন সাম্যের গান গেয়ে গেছেন। জাতি, ধর্ম, বর্ণ সবাই তার কাছে সমান সমাদৃত ছিলেন।
ঋষিধাম ও তুলসী ধামের মোহন্ত মহারাজ সুদর্শনানন্দ পুরী মহারাজের পৌরহিত্যে শ্রীগুরু সংঘের সভাপতি লায়ন প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ মো. হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ মো. শাহেনুর ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ঋষি অদ্বৈতানন্দ পরিষদ বাংলাদেশের সভাপতি ও রাউজান পৌরসভার মেয়র দেবাশীষ পালিত। বক্তব্য দেন ড. জিনবোধি ভিক্ষু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী সাহেল তস্তুরী প্রমুখ।