বুধবার ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮, বিকাল ০৫:৫৪
ব্রেকিং নিউজ

■  ২০১৯ সালে বাংলাদেশে বেকারের সংখ্যা হবে ৩০ লাখ: আইএলও ■  রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বিলম্বের জন্য বাংলাদেশ দায়ী: মিয়ানমার ■  হবিগঞ্জে কৃষক হত্যায় একই পরিবারের ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড ■  পশুখাদ্য মামলায় ফের ৫ বছরের কারাদ্ণ্ড লালুপ্রসাদের ■  আ.লীগ ৪০টির বেশি আসন পাবে না : জানালেন মোশাররফ ■  নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া নির্বাচন হবে না: হুশিয়ারি ফখরুলের ■  ২৯ জানুয়ারি ছাত্র ধর্মঘট ডেকেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট ■  চবিতে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যের মিছিলে ছাত্রলীগের হামলা ■  ঢাবি উপাচার্যকে হেনস্তার ঘটনায় ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি ■  আফগানিস্তানে ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ কার্যালয়ে হামলা, নিহত ২ ■  ঢাবিতে অরাজকতা হতে দেওয়া হবে না: হুশিয়ারি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

সেরা করদাতা পরিবারও সম্মাননা পাবে

রাজস্ব সংলাপে এনবিআর চেয়ারম্যান

Published : 2017-03-17 00:53:00
শাহ্জাহান সাজু, বাগেরহাট থেকে: সেরা করদাতা পরিবারকে সম্মাননা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান। তিনি বলেছেন, যে পরিবারের সবাই কর দেয়, সে পরিবারকে সম্মাননা দেওয়ার যে প্রস্তাব এসেছে, সে প্রস্তাব বিবেচনায় নেওয়া হল। তাদেরকে কর বাহাদুর পরিবার হিসেবে অভিহিত করা যায়। এ বিষয়ে একটি নীতিমালা তৈরি করা হবে বলে জানান তিনি।
বুধবার বাগেরহাটের জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রাক-বাজেট আলোচনা ও রাজস্ব সংলাপে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাগেরহাট-৪ আসনের সাংসদ ও সাবেক সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মোজাম্মেল হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাগেরহাট-৩ আসনের সাংসদ ও সাবেক দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী তালুকদার আবদুল খালেক, বাগেরহাট-২ আসনের সাংসদ মীর শওকত আলী বাদশা। এ ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন এনবিআর সদস্য ফরিদ উদ্দিন, কালিপদ হালদার, পারভেজ ইকবাল প্রমুখ।
এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, কর প্রদানের ক্ষেত্রে বাগেরহাট একটি বাহাদুর অঞ্চল। এ অঞ্চল থেকে সিংহভাগ কর আসছে। আমি বাগেরহাটের জন্য একটি সুসংবাদ নিয়ে এসেছি। তা হল-১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের মধ্যে সবার আগে প্রস্তুত হয়েছে মংলা অর্থনৈতিক
অঞ্চল। বাগেরহাটে রাজস্ব সংলাপ আয়োজনের উদ্দেশ্য সম্পর্কে নজিবুর রহমান বলেন, দেশের দক্ষিণাঞ্চলে জন্ম নিয়েছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার হাতেই গড়া এই এনবিআর। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় প্রকল্প হচ্ছে পদ্মা সেতু। এ প্রকল্পে যথাযথভাবে ব্যয়ের মাধ্যমে দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের চেষ্টা করছে সরকার। এই প্রকল্পের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। পদ্মা সেতু বাস্তবায়নের মাধ্যমে ঢাকার সঙ্গে দক্ষিণাঞ্চলের দূরত্ব কমে যাবে, যা অর্থনীতিতে গতি সঞ্চার করবে। আসছে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট হবে অধিকতর শিল্প ও ব্যবসাবান্ধব।
এর আগে বাগেরহাট সদর আসনের সাংসদ মীর শওকত আলী বলেন, যে পরিবারের সবাই ট্যাক্স দেন, সে পরিবারকে পুরস্কারের দাবি জানাই। তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের ন্যায়সঙ্গত দাবির প্রতি আমার অকুণ্ঠ সমর্থন রয়েছে। বাগেরহাটবাসী কর প্রদানে অত্যন্ত আন্তরিক। তারা ট্যাক্স প্রদান করে শীর্ষস্থানে থাকবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।
সবাইকে ট্যাক্স দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বাগেরহাট-৪ আসনের সাংসদ মোজাম্মেল হোসেন বলেন, আমি জীবনে কর ফাঁকি দেইনি। যারা মনে করেন, ট্যাক্স দিলে আয় কমে যায়, তারা আমার কাছ থেকে টাকা নিয়ে যাবেন। আমি মনে করি ট্যাক্স দিলে সম্পদ কমে না, বরং বাড়ে। এ সময় বাগেরহাটে কয়লা বিদ্যুত্ নির্মাণে যারা বিরোধিতা করে তাদের সমালোচনা করে বলেন, কোথায় সুন্দরবন কোথায় রামপাল।
বাগেরহাট জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ কামরুজ্জামান টুকু বলেন, আমরা আরও উন্নত জীবন চাই। সেজন্য প্রয়োজন রাজস্ব। তাই রাজস্ব বৃদ্ধি করতে হবে। তবে রাজস্ব আয় এমনভাবে বাড়াতে হবে, তা যেন দরিদ্র জনগণের ওপর রাজস্ব যেন বোঝা না হয়। এ সময় মংলা বন্দরকে পুরোদমে সচল করার দাবি জানান তিনি।