মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর, ২০১৭, সন্ধ্যা ০৭:৫৭

শবেবরাতের হালুয়া-বরফি

খাবারদাবার

Published : 2017-05-10 11:06:00,
শবেবরাতে হালুয়া-রুটি হয় না, এমন বাসা কমই আছে। আপনিও বানিয়ে ফেলতে পারেন মজাদার এসব খাবার। ডালের ও পেঁপের হালুয়া এবং গাজরের বরফির রেসিপি দিয়েছেন সুমাইয়া জান্নাত

ডালের হালুয়া
উপকরণ : ছোলার ডাল আধা কেজি। ঘি আধা কাপ। কনডেন্সড মিল্ক পুরো এক কৌটা। চিনি দেড় কাপ।
প্রস্তুত প্রণালী : ডাল ধুয়ে চার কাপ পানি দিয়ে সিদ্ধ বসান। নাড়া লাগবে না, আগুনের আঁচে মোটামুটি হলেই চলবে। নাড়া দিলে ডালগুলো ভেঙে লেগে যেতে পারে। পানি ফুটলে জ্বাল কমিয়ে ঢেকে দিন। ডাল সিদ্ধ হয়ে এলে নামিয়ে শিল-পাটায় মিহি করে বাটতে হবে। এবার মিহি করা ডাল একটি পাত্রে নিয়ে সব উপকরণ একসঙ্গে দিয়ে বারবার নাড়তে থাকুন। এ সময় জ্বাল বাড়িয়ে দিতে হবে। নইলে রং সুন্দর হবে না। নাড়তে নাড়তে যখন দেখবেন হালুয়ার পাত্র থেকে সহজে উঠে যাচ্ছে, ঠিক তখনই নামিয়ে ফেলতে হবে। গরম গরম অবস্থাতেই হালুয়া একটা স্টিলের প্লেটে নিয়ে সমান করে বিছিয়ে দিন। তারপর চাকু দিয়ে বরফি আকারে কাটুন বা আপনার ইচ্ছামতো আকারেও কাটতে পারেন। ঠাণ্ডা হয়ে গেলে একটা একটা করে উঠিয়ে বাদাম ও কিশমিশ লাগিয়ে পরিবেশন করুন।

গাজরের বরফি

উপকরণ : গাজর ১ কেজি। ঘি আধা কাপ। গুঁড়া দুধ ১ কাপ। চিনি ২ কাপ।
প্রস্তুত প্রণালী : গাজরগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। খোসা ছাড়ান। এরপর সবজি কুরানির চিকন পাশ দিয়ে কুরাতে হবে।
রান্না করার পাত্রে অর্ধেক ঘি দিয়ে গাজর ঢেলে দিন। চিনি দিয়ে নাড়তে থাকুন। পানি উঠে আসলে আগুনের আঁচ বাড়িয়ে পানি টেনে আনুন। এখন বাকি ঘি আর দুধ দিয়ে নাড়তে হবে। দুধ ছড়িয়ে দিতে হবে।
বেশি আঁচে নাড়তে থাকুন। নইলে গাজরের আসল রং নষ্ট হয়ে যাবে। একটু ভাজা ভাজা হয়ে এলে নামিয়ে গরম অবস্থাতেই স্টিলের প্লেটে রেখে সমান করে নিন। পরে চাকু দিয়ে বরফি বা আপনার ইচ্ছামতো আকারে কেটে রাখতে হবে। ঠাণ্ডা হয় গেলে একটা একটা করে উঠিয়ে বাদাম কিশমিশ দিয়ে পরিবেশন করুন।

পেঁপের হালুয়া

উপকরণ : কাঁচা পেঁপে ২ কেজি। চিনি ৩ কাপ। ঘি ১ কাপ। দুধ দিলেও হয় না দিলেও হবে।
প্রস্তুত প্রণালী : পেঁপে ভালো করে ধুয়ে খোসা ছিলে নিয়ে একটি পাত্রে ৪ কাপ পানিতে সিদ্ধ করুন। খেয়াল রাখুন ঢাকনা যেন পাত্রের সঙ্গে এঁটে থাকে। পানি টেনে আসলে পেঁপে নামিয়ে নিন। ঠাণ্ডা হলে ভালো করে বাটতে হবে। যে পাত্রে রান্না করবেন সেটাতে আগে ঘি গরম করে তাতে সিদ্ধ পেঁপেবাটা দিয়ে দিন। এখন বেশ ভালো আঁচে নাড়তে হবে। পানি টেনে আসলে গুঁড়া দুধ (যদি মেশান) বারবার ছিটিয়ে নাড়ত হবে। দুধ মিশে গেলে চিনি দিন। নাড়তে নাড়তে যখন হালুয়া পাত্র থেকে সহজে উঠে যাচ্ছে ঠিক তখন নামিয়ে আনুন। ঠাণ্ডা হলে তারপর পরিবেশন করুন।