মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৮, সকাল ০৮:০৩

টঙ্গীতে চলছে শ্বাসরুদ্ধকর জঙ্গি ও সন্ত্রাস বিরোধী অভিযান

Published : 2017-04-23 17:20:00
নিজস্ব প্রতিবেদক: সন্ত্রাস, মাদক, জঙ্গি ও চাঁদাবাজ নির্মূলে শিল্প নগরী টঙ্গীতে অবস্থিত ১৫টি ওয়ার্ডে একযোগে আজ রোববার বিকেল ৩টা থেকে চিরুনী অভিযানে নেমেছে গাজীপুর জেলা পুলিশ। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত একটানা এ অভিযান চলবে। অভিযানে পুলিশকে সহযোগিতা করছে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগসহ সরকারি দলের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা। টঙ্গীতে পুলিশের এ অভিযানকে কেন্দ্র করে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। বিকেল সোয়া ৫ টা পর্যন্ত অভিযানে অর্ধশতাধিক মাদক সেবনকারীসহ বিভিন্ন অপরাধীদের আটক করা হয়েছে বলে একটি সূত্র জানায়। তবে অভিযানে জঙ্গি সংশ্লিষ্টার অভিযোগে কাউকে আটক বা গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ সকালের খবরকে বলেন, অভিযান চলছে। শেষ না হওয়া পর্যন্ত কতজনকে আটক করা হয়েছে তা সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হবে।
অভিযানের আগে বেলা ২টায় টঙ্গী মডেল থানার ওসির কক্ষে গাজীপুর জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের জানান, টঙ্গীর ১৫টি ওয়ার্ডে ৬০ভাগে বিভক্ত হয়ে পাঁচ শতাধিক পুলিশ সদস্য অভিযান চালাচ্ছে। পুলিশ সদস্যরা প্রতিটি বাড়িতে যাবে। বাড়িওয়ালাদের সহযোগিতায় ভাড়াটিয়াদের প¬্যাট বা কক্ষে তল্লাশি চালানো হবে। যেসব বাড়িতে বাড়িওয়ালাদের পাওয়া না যাবে সেসব বাড়িতে পুলিশ সরাসরি প্রবেশ করবে। বাসা বাড়িগুলোতে কারা বাস করেন এবং তারা কি করেন বা কখন বাড়িতে আসেন ও যান এসব বিষয়ে জানতে চাওয়া হবে।

এসপি আরো বলেন, টঙ্গীতে হাজার হাজার বাড়িতে লাখ লাখ মানুষ বাস করেন। প্রতিদিন টঙ্গী থেকে হাজার হাজার লোক রাজধানীতে প্রবেশ করেন। রাজধানীর কাছের নগরী হওয়ায় অপরাধীরা টঙ্গীতে আশ্রয় নিয়ে থাকে। ইতিপূর্বে টঙ্গী থেকে হুজি নেতা মুফতি হান্নানকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা হয়েছে। এছাড়া আরো বিভিন্ন অভিযানে ইতিপূর্বে টঙ্গী থেকে অনেক জঙ্গি গ্রেফতার হয়েছে। এই জেলায় ৬টি জেলখানা রয়েছে। এসব জেলখানার আশপাশে জঙ্গি ও সন্ত্রাসীরা আশ্রয় নিয়ে থাকে। তিনি বলেন, আমরা এই অভিযানের মাধ্যমে এই ম্যাসেজ দিতে চাই যে, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মাদক কারবারি ও জঙ্গিদের সমাজে কোন ঠাই নেই। টঙ্গী শিল্প নগরির হাজার হাজার বাসা বাড়িতে কারা বাস করে আজ আমরা সচক্ষে দেখবো।

গত শুক্রবার টঙ্গীর মসজিদগুলোর মাইকে ঘোষণা দিয়ে আজকের এই অভিযানের কথা জানানো হয়। এ উপলক্ষে প্রতিটি ওয়ার্ডে সরকার দলীয় নেতা কর্মীদের দিয়ে কমিটি গঠন করা হয়। টঙ্গী থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান, অভিযানের সময় যাতে কোন অপ্রীতকর ঘটনা না ঘটে বা পুলিশ সদস্যরা যাতে কোন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন না হয় সেজন্যই সরকার দলীয় নেতা কর্মীদের সহযোগিতা নেয়া হচ্ছে।