বুধবার ১৮ অক্টোবর, ২০১৭, দুপুর ০১:৩৩

বাবলু-টুম্পার নতুন জীবন শুরু

Published : 2017-04-21 23:18:00, Count : 2001
নিজস্ব প্রতিবেদক: ৬৫ বছর বয়সে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক মেহেজেবুন্নেসা রহমান টুম্পার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে জীবনের আরেক অধ্যায় শুরু করলেন রাজনীতিবিদ জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। এর মধ্য দিয়ে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য
বাবলু তার দলের চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে পেলেন মামা শ্বশুর হিসেবে।
গতকাল ৩০ লাখ টাকা দেনমোহরে টুম্পার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন বাবলু। বিয়েতে স্ত্রীকে প্রায় এক কোটি টাকা মূল্যের গাড়ি উপহার দিয়েছেন তিনি। গতকাল বেলা ১১টায় বারিধারায় এরশাদের বাড়ি প্রেসিডেন্ট পার্কেই তাদের বিয়ে হয়। বাবলুর বিয়েতে উকিল হয়েছেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের। দলের মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার ছিলেন কনেপক্ষের সাক্ষী; আর বরপক্ষের সাক্ষী হন পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। সকাল সাড়ে ১০টায় বাবলু তার ঘনিষ্ঠজনদের নিয়ে প্রেসিডেন্ট পার্কে উপস্থিত হন। বেলা ১১টায় তাদের বিয়ে পড়ানো হয়। কনের মা মেরিনা রহমানসহ দুই পরিবারের নিকট আত্মীয়রা উপস্থিত ছিলেন এ সময়।
রাতে খিলক্ষেতের হোটেল লো মেরিডিয়ানে নবদম্পতির বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতায় এরশাদ ছাড়াও তার ভাই জিএম কাদের, জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, পানি সম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ্র রায়সহ বেশ কয়েকজন, এরশাদের বোন ও বাবলুর শাশুড়ি মেরিনা ইয়াসমিন এমপি, জিয়াউদ্দিন বাবলুর ছেলে ও ছেলের বউসহ অন্যান্য আত্মীয় এবং পারিবারিক সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এরশাদের বাসায় বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয় খুব অল্প সময়ে। কাবিনের অনুষ্ঠান শেষে বর-কনের জন্য দোয়া করেন সবাই। এরশাদের স্ত্রী এবং বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ সৌদি আরব থাকার কারণে কাবিনসহ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেননি।
জিয়াউদ্দিন বাবলু দশম জাতীয় সংসদে জাপার দলীয় সংসদ সদস্য। তার শাশুড়ি মেরিনা ইয়াসমিন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য। মামা শ্বশুর এরশাদও এ সংসদের সদস্য। আর মামি শাশুড়ি রওশন এরশাদ জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা।
জিয়াউদ্দিন বাবলুর স্ত্রী ফরিদা সরকার ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে ২০০৫ সালে মারা যান। ফরিদা নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ছিলেন। বাবলুর দ্বিতীয় স্ত্রী মেহেজেবুননেছা রহমান অধ্যাপক। তিনি সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটির বিবিএর প্রোগ্রাম ডিরেক্টর। প্রথম সংসারে তার এক মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। স্ত্রী ফরিদা সরকারের মৃত্যুর পর একমাত্র ছেলে আশিক আহমেদকে নিয়ে আছেন জিয়াউদ্দিন বাবলু। ছেলে এমবিএ শেষ করে ব্যবসা করছেন। তিনিও বিয়ে করেছেন।