সোমবার ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, রাত ০৩:১০

রমজানের আগে ভাস্কর্য না সরালে ঈদের পর সুপ্রিমকোর্ট ঘেরাও

Published : 2017-04-21 22:57:00, Count : 452
নিজস্ব প্রতিবেদক: রমজানের আগে সুপ্রিমকোর্ট চত্বর থেকে ভাস্কর্য সরানোর দাবি জানিয়েছে চরমোনাই পীরের নেতৃত্বাধীন ইসলামী আন্দোলন।
অন্যথায় ঈদুল ফিতরের পর দাবি আদায়ে সুপ্রিমকোর্ট ঘেরাওয়ের হুমকি দিয়েছে সংগঠনটি। পাশাপাশি ১৭ রমজান সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনেরও ঘোষণা দিয়েছে চরমোনাই পীরের দল।
গতকাল বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেটে এক সমাবেশ থেকে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। সমাবেশে সংগঠনের আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, মূর্তির জায়গা মন্দিরে। সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে মূর্তি সরাতে হবে। মূর্তি না সরালে ১৭ রমজান সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে।
ইসলামী আন্দোলনের আমির বলেন, স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব নিয়ে আমরা শঙ্কিত। জাতীয় ঈদগাহের পাশে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণে গ্রিক দেবীর ‘মূর্তি’ স্থাপন করে মুসলমানদের ধর্মীয় চেতনায় সবচেয়ে বড় আঘাত হানা হয়েছে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘মূর্তি’ কীভাবে এলো, কোথা থেকে এলো, কে বসালো, তিনি তা জানেন না। শুনেছি প্রধান বিচারপতির একক সিদ্ধান্তে ‘মূর্তি’ স্থাপিত হয়েছে। কাদের স্বার্থে গ্রিক ‘মূর্তি’ সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণে স্থাপন করা হল? এটা জনতার প্রশ্ন।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রেজাউল করিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী যাদের খুশি করার জন্য সংবিধানের মূলনীতি থেকে আল্লাহর ওপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস তুলে দিয়ে ধর্মনিরপেক্ষতা বসালেন, তারা আগামী নির্বাচনে আপনাকে ভোট দেবে না।
সমাবেশে দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী, নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করিম, মাওলানা আবদুল হক আজাদ, মাওলানা আবদুল আউয়াল পীর সাহেব, মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ ও রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলীসহ অনেকে বক্তব্য রাখেন।