সোমবার ২৩ অক্টোবর, ২০১৭, রাত ১১:১৯

বিশ্বে যেকোনা সময় মহাপ্রলয় ঘটে যেতে পারে: জাতিসংঘ

Published : 2017-04-21 17:47:00, Count : 4733
অনলাইন ডেস্ক: সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার সমালোচনা করে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একটি নিন্দা প্রস্তাব উত্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু রাশিয়া ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করে সেই প্রস্তাব আটকে দেয়। যদিও উত্তর কোরিয়ার সবচে বড় মিত্র চীন এ নিন্দা প্রস্তাবের পক্ষে সমর্থন দিয়েছে।

এসব কারণে বিশ্বে ভুল বোঝাবুঝির জন্যে পরমাণু যুদ্ধের আশংকা বাড়তে পারে বলে হুঁশিয়ারি করেছে জাতিসংঘের নিরস্ত্রীকরণ গবেষণা সংক্রান্ত ইন্সটিটিউট ইউএনডিআর।

এতে বলা হয়েছে, ড্রোন, কৃত্রিম উপগ্রহ, নেটওয়ার্ক এবং সেন্সর নিয়ে গড়ে উঠেছে বর্তমানের সামরিক যোগাযোগ ব্যবস্থা। এতে পারস্পারিক গোপন আদান-প্রদান ব্যবস্থা সক্রিয় আছে। ফলে সামান্য বিষয়ে ভুল বোঝাবুঝি কারণে বা স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থার ওপর অতি নির্ভরতার কারণে পরমাণু দুর্ঘটনার মতো বড় সব দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে এএফপির খবরে বলা হয়েছে।

জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারের সঙ্গে জটিল যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে এতে ভুলে পরমাণু যুদ্ধ শুরুর আশংকা আরো বেড়েছে।

এছাড়া মার্কিন পরাশক্তি যখন নিজেদের পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচির ভবিষ্যৎ যাচাই করতে শুরু করেছে এবং উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যখন গরম বাক্য বিনিময় চলছে তখনই জাতিসংঘের কাছ থেকে এমন হুঁশিয়ারি আসলো। এদিকে অনেকেই ধারনা করছেন প্লুটোনিয়াম এবং ইউরেনিয়াম উৎপাদন বাড়ানোর কারণে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু বোমার সংখ্যাও বেড়েছে।