বুধবার ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮, ভোর ০৬:০৪

প্রাথমিক পর্যায়ে নৈতিক ও মানসম্পন্ন শিক্ষার অভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার মান প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে

Published : 2017-03-14 21:12:00
প্রাথমিক পর্যায়েই শিশুদের নৈতিক শিক্ষা প্রদান করতে হবে। কেননা প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষাই একটি দেশের শিক্ষার মূল ভিত্তি। এই ভিত মজবুত না করতে পারায় আমাদের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষার মান প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে। বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে ব্যক্তিগত-সামাজিক মূল্যবোধের চর্চা দিন দিন দূর্বল হয়ে যাচ্ছে। তাই এখনই প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষা প্রদানপূর্বক মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে না পারলে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে মূল্যবোধসম্পন্ন উঁচুমানের গ্র্যাজুয়েট তৈরি সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে “Effective Implimentation of DPEd Program” শীর্ষক ৫ দিনব্যাপী এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন। প্রাথমিক শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নের লক্ষ্যে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।

শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক হোসনে আরা বেগমের সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক সুলতান মাহমুদ, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমির মহাপরিচালক ফজলুর রহমান এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (প্রশিক্ষণ) বিজয় ভূষণ পাল বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন। কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য দেন কর্মশালা সমন্বয়কারী অধ্যাপক ড. শারমিন হক।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, সব শিক্ষকের মেধা, দক্ষতা ও যোগ্যতা সমান হবে - এমনটি আশা করা যায় না। তবে সবার মাঝে নিষ্ঠা, নৈতিক মূল্যবোধ ও দায়িত্ববোধ থাকতে হবে। প্রাথমিক স্তর থেকেই শিক্ষার্থীদের সত্, দেশ-প্রেমিক ও সুনাগরিক হিসাবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে শিক্ষকদের কার্যকর ভূমিকা পালন করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রাথমিক শিক্ষাকে  অগ্রাধিকার দিয়ে এই শিক্ষাকে জাতীয়করণ করেছিলেন। এসময় উপাচার্য একমুখী প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

প্রসঙ্গত, দেশের বিভিন্ন প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (পিটিআই) থেকে অর্ধশতাধিক প্রশিক্ষক এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করছেন।