মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৮, বিকাল ০৫:৩৮

পলাশবাড়ীতে ডাকাতির চেষ্টা গণপিটুনিতে নিহত ১

Published : 2017-04-01 23:36:00
গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার সাকোয়া সেতু এলাকায় ডাকাতির চেষ্টাকালে গণপিটুনিতে সিদ্দিক মিয়া (৩০) নামে এক ব্যক্তি গতকাল দুপুরে মারা গেছে। সিদ্দিক মিয়ার বাড়ি পার্শ্ববর্তী গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কালিতলা দক্ষিণ মিরুপাড়া গ্রামে। সে ওই গ্রামের আবদুর রহমানের ছেলে।
পলাশবাড়ী থানা পুলিশ সূত্র জানায়, গত শুক্রবার রাত ১টার দিকে গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কের পলাশবাড়ী উপজেলার সাকোয়া সেতু এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে চারজনকে আটক করে গণধোলাই দেয় স্থানীয় জনতা। পরে পুলিশ আহতদের পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিত্সা দিয়ে ওইদিন রাত ৪টার দিকে থানায় নিয়ে যায়।
গণধোলাইয়ে আহত হয় গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কালিতলা দক্ষিণ মিরুপাড়া গ্রামের আবদুর রহমানের ছেলে সিদ্দিক মিয়া, একই উপজেলার গোপিনাথপুর গ্রামের মৃত জহুরুল হকের ছেলে লাল মিয়া, কালিতলা গ্রামের মৃত খোরশেদ আলীর ছেলে শফিকুল এবং পলাশবাড়ী উপজেলার সাকোয়া মাঝিপাড়া এলাকার মৃত মফছের আলীর ছেলে আইয়ুব আলী। আহতদের মধ্যে সিদ্দিক মিয়ার অবস্থার অবনতি হলে গতকাল দুপুরে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিত্সক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) তনয় কুমার বলেন, তাকে মৃত অবস্থায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়।  
এ ঘটনায় পলাশবাড়ী থানার এসআই ফারুকুজ্জামান বাদী হয়ে থানায় একটি ডাকাতির মামলা করেছেন।
পলাশবাড়ী থানার ওসি মাহমুদুল আলম গতকাল রাত ৮টায় মোবাইল ফোনে জানান, সিদ্দিক মিয়া শুক্রবার রাতে গণপিটুনিতে মারাত্মক আহত হয়। আহত অবস্থায় তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিত্সা দিয়ে ভোররাতে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরদিন গতকাল দুপুরে পুনরায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে সে মারা যায়। ওসি আরও জানান, দীর্ঘদিন ধরে সিদ্দিক ও অন্য তিনজন ছিনতাই ও ডাকাতির সঙ্গে জড়িত।

 

আরও খবর