রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, সকাল ০৯:০৬

৪০০ শিষ্যের যৌনক্ষমতা নষ্ট করেন রাম রহিম

Published : 2018-02-02 23:55:00, Updated : 2018-02-03 00:09:49
অনলাইন ডেস্ক: ভারতের স্বঘোষিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের বিরুদ্ধে এবার আরও গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। আশ্রমের প্রায় ৪০০ জন শিষ্যের 'যৌনক্ষমতা' পাকাপাকিভাবে কেড়ে নেন গুরমিত রাম রহিম, কেটে ফেলেন আশ্রমের প্রত্যেক শিষ্যের অণ্ডকোষ—এমনই অভিযোগ করেছেন শিষ্যরা।

জানা গেছে, কোমল পানীয় পেপসির সঙ্গে মাদক মিশিয়ে সংজ্ঞাহীন করে চলত সার্জারি। এই অভিযোগে রাম রহিমের বিরুদ্ধে নতুন করে মামলা করেছে সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই)।

তবে তদন্তকারী কর্মকর্তারা বলছেন, এসবই রাম রহিমের যৌন লালসার ফল। আশ্রমের সমস্ত কম বয়সী সাধ্বীদের একাই ভোগ করার লালসা ছিল রাম রহিমের। তাই সে চাইত না, আশ্রমে সে ছাড়া অন্য কোনও পুরুষ মানুষ থাকুক। তাই সিরসার আশ্রমের ৪০০ জন শিষ্যর নির্বীজকরণের নির্দেশ দেয় রাম রহিম। এই ঘটনার তদন্তের ভার সিবিআইকে দেয় পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট।

সিবিআই মুখপাত্র অভিষেক দয়াল বলছেন, 'রাম রহিমের বিরুদ্ধে প্রায় ৪০০ জন অভিযোগ দায়ের করে জানিয়েছেন, তাদের ভুল বুঝিয়ে সার্জারি করানো হয়। বলা হয়, মিলনক্ষমতা হারালেই নাকি ঈশ্বরের কাছাকাছি আসা যাবে, হয়ে ওঠা যাবে রাম রহিমের বিশেষ ভক্ত। সেই লোভেই শিষ্যরা সার্জারি করান। কিন্তু এবার বাবার জারিজুরি ধরা পড়ে যাওয়ায় প্রতিবাদে মুখর হয়েছেন ওই শিষ্যরা।'

প্রসঙ্গত, প্রায় ৬ মাস হয়ে গেল ভারতের স্বঘোষিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং জেলে। ডেরা সাচা সওদা প্রধান আশ্রমের ভেতরেই দুই সাধ্বীকে ধর্ষণের সাজা ভোগ করছেন তিনি।