শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, বিকাল ০৩:৫১

মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট নাশিদের কারাদণ্ড বাতিল

Published : 2018-02-02 11:05:00
ফাইল ফটো

অনলাইন ডেস্ক : মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদের কারাদণ্ড বাতিল করে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা পুনর্বিবেচনার নির্দেশ দিয়েছেন মালদ্বীপের সর্বোচ্চ আদালত। বৃহস্পতিবারের (০১ ফেব্রুয়ারি) এই ঘোষণায় নাশিদসহ অন্যান্য রাজবন্দিদেরও মুক্তি দেয়ার আদেশ দেয়া হয়েছে।

বিবৃতিতে জানানো হয়, মোহাম্মদ নাশিদের বিরুদ্ধে পরিচালিত মামলাগুলো অসাংবিধানিক ও আন্তর্জাতিক নীতিমালার লঙ্ঘন। ২০১৫ সালে সাবেক এই প্রেসিডেন্টকে ১৩ বছর কারাদণ্ড দেয়ার আগেই ব্রিটেনে রাজনৈতিক আশ্রয় নেন তিনি। এছাড়া গেলো বছর পদচ্যুত বিরোধী দলীয় ১২ সংসদ সদস্যকেও পুনর্বহালের আদেশও দিয়েছেন আদালত। তাদের মধ্যে সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট আদিব আবদুল গফুরও রয়েছেন। এরফলে পার্লামেন্টে আবারও শক্তিশালী অবস্থানে যাবে বিরোধীরা। বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনকে ইমপিচমেন্টের মতো ক্ষমতাও পেলো বিরোধীরা। সম্প্রতি বিরোধী জোট প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অবিচার আর ক্ষমতার অপ-ব্যবহারের অভিযোগ তুলে তাকে অপসারণের দাবি জানায়। আদালতে পিটিশন দায়ের করে। সেটি বিবেচনার পর এলো সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশ।

প্রধান বিরোধী দল মালদিভিয়ান গণতান্ত্রিক দল (এমডিপি) আদালতের নির্দেশকে স্বাগত জানিয়েছে। তারা এ রায়কে দুর্নীতিগ্রস্ত ও অপরাধী একনায়কের পতনঘণ্টা হিসেবে বর্ণনা করেছে। ২০১৩ সালে এক বিতর্কিত নির্বাচনে নাশিদের বিরুদ্ধে ৫৮ বছর বয়সী ইয়ামিন জয়লাভ করেন। এর পর থেকে বিরোধীদলীয় প্রায় সব নেতাকে হয় কারাগারে, নয়তো নির্বাসনে যেতে হয়েছে। ২০১৬ সালে চিকিৎসার কথা বলে নাশিদ কারাগার থেকে লন্ডনে চলে যান এবং সেখানে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেন।