শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, বিকাল ০৩:৫৩

বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষার হলে তাহমিনা

Published : 2018-02-01 17:54:00, Updated : 2018-02-01 17:59:13

অনলাইন ডেস্ক : শিক্ষক বাবার হাত ধরেই প্রথম স্কুলযাত্রা তাহমিনার। এরপর এতটি বছর ধরে বাবার হাত ধরেই পরীক্ষার হলে যেত তাহমিনা। সেই বাবা আজ মেয়ের সাথে এসএসসি পরীক্ষার হলে যাননি। তার লাশ খাটিয়ায় শুইয়ে রেখে একাই পরীক্ষা দিতে যেতে হয়েছে কিশোরী মেয়েকে। আজ সকালেই অকস্মাৎ বাবাকে হারানো তাহমিনার চোখের পানিতে ভিজেছে তার পরীক্ষার খাতা।

সারা দেশে আজ শুরু হয়েছে এসএসসি সমামানের পরীক্ষা। সহপাঠিরা জানিয়েছে, তাহমিনার বাবা ঢেউখালী ইউনিয়নের মধ্য বাবুরচার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. তোফাজ্জেল হোসেন। প্রায় বছর খানেক আগে ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হন। আজ বৃহস্পতিবার (০১ ফেব্রুয়ারি) সকালে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন তিনি।

পরীক্ষার দিন সকালে বাবাকে হারিয়ে শোকে মূহ্যমান তাহমিনার পরীক্ষায় অংশ নেয়ার মতো অবস্থায় ছিলো না। স্থানীয় বাবুরচর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সহযোগিতায় শেষ পর্যন্ত সে পরীক্ষার হলে যায়। ঘটনাটি জানাজানি হলে ফরিদপুরের বেগম কাজী জেবুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্র শোকের ছায়া নেমে আসে।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পূরবী গোলদার ওই তাহমিনাকে শান্তনা দিতে কেন্দ্রে ছুটে যান। এসময় আবেগঘন মুহুর্ত তৈরি হয় পরীক্ষার হলে। এক হাতে চোখ মুছতে মুছতে অন্য হাতে উত্তরপত্রে লেখতে দেখা যায় তাহমিনাকে।

তোফাজ্জেল হোসেন দুই কন্যা, এক ছেলে ও স্ত্রী লাইলি বেগমকে রেখে মারা গেছেন। তাহমিনা তার বড় মেয়ে। মেজ ছেলে আজিজুল ইসলাম স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করছে, আর ছোট মেয়ে লাবনী বাবুরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র।