শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, রাত ০১:৫৫

ডিসেম্বরের নির্বাচনের ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

Published : 2018-01-30 18:02:00, Updated : 2018-01-30 18:24:17

অনলাইন ডেস্ক : আগামী ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হচ্ছে উল্লেখ করে সে নির্বাচনের জন্য সিলেটবাসীর কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাইলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, নৌকা স্বাধীনতা এনে দিয়েছে। দেশকে সমৃদ্ধির পথ দেখিয়েছে। নৌকা মার্কার দল আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে দেশের উন্নয়ন হয়। এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামী ডিসেম্বরে যে নির্বাচন হবে, সে নির্বাচনে আপনাদের কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাই।

মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেলে সিলেট আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় শেখ হাসিনা বক্তৃতা করছিলেন। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এটি ক্ষমতাসীন দলের প্রথম প্রচারণামূলক সভা।

সভায় নৌকা মার্কায় ভোট চাওয়ার এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত নেতা-কর্মী-সমর্থক ও জনতাকে হাত তুলে অঙ্গীকার করতে বলেন। জনতাও হাত তুলে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার ওয়াদা করেন আওয়ামী লীগ সভাপতির কাছে।

জনসভায় যোগদানের আগে প্রধানমন্ত্রী বেশ কিছু উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

সরকারের উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা উন্নয়নের ছোঁয়া সিলেটের প্রতিটি ইউনিয়নে পৌঁছে দিয়েছি। সিলেটের উন্নয়নের জন্য আমরা ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। আজ একযোগে ৩৫টি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে।   

‘আওয়ামী লীগ জনগণের জীবনের মান উন্নয়ন করে। আমি আজ সিলেটে এসেছি। আমাদের নির্বাচনের প্রচারণা শুরু এখান থেকেই শুরু।’

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় বাংলাদেশ দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেছেন, তাদের কারণে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়। তাদের আমলে বাংলা ভাইয়ের সৃষ্টি, জঙ্গিবাদের সৃষ্টি। ২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার দেশে হত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ঠেকানোর নামে সন্ত্রাস-তাণ্ডব চালিয়েছিল। সেসময় অনেক মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। সিএনজি চালিককে পুড়িয়ে মেরেছে তারা। হাজার হাজার গাছ কেটে ফেলে। আমরা গাছ লাগাই, তারা গাছ কেটে ফেলে, আমরা রাস্তা করি, তারা ধ্বংস করে।