বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ০১:০১

৭৯ রানে হেরে ফাইনালের স্বপ্নভঙ্গ

Published : 2018-01-27 21:00:00, Updated : 2018-01-27 21:50:44
সাইফউদ্দিন রান আউট হওয়ার পর মাহমুদউল্লাহর প্রতিক্রিয়া অনলাইন ডেস্ক : ফেবারিটের তকমা নিয়ে টুর্নামেন্টটি শুরু করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু আরেকটি ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে গিয়ে পরাজয় বরণ করে নিতে হল টাইগারদের। ৭৯ রানের হারে শেষ হলো বাংলাদেশের ত্রিদেশীয় সিরিজ। 

শনিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরে ফাইনাল ম্যাচে মিরপুর স্টেডিয়ামে টস জিতে শুরুতে ব্যাটিংয়ে নামে শ্রীলঙ্কা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে দানুস্কা গুলনাতিলকার উইকেট তুলে ওপেনিং জুটি ভেঙেছিলেন মিরাজ। সেই ধারাবাহিকতায় লঙ্কান দল নির্ধারিত ৫০ ওভারে সব উইকেটে ২২১ রান সংগ্রহ করে। 

মহাগুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে ২২২ রানের জয়ের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে মাশরাফিবাহিনী। টাইগারদের ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারের তৃতীয় বলে তামিম ১৮ বলে মাত্র ৩ রান করেন আউট হন। 

এনামুল হকের বাজে ফর্মের কারণে পাওয়া সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি ওপেনার মোহাম্মদ মিঠুনের ফাইনালে অন্তর্ভুক্তিও। ২৭ বলে ১০ রান করেই আউট হয়ে গেছেন। 

এরপর সাব্বির রহমান ৯ বলে ২ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। পরে ইনিংস গড়ার দায়িত্ব নিয়েছিলেন মুশফিক-মাহমুদুল্লাহ। দুইজনে মিলে চতুর্থ উইকেটে ৫৮ রানের জুটিও গড়ে তোলেন। পরে আকিলা ধনঞ্জয়ার বলে সুইপ করতে গিয়ে আউট হয়েছেন ২২ রানে। 

মুশফিকের বিদায়ের পর মাহমুদুল্লাহ চেষ্টা করলেও সঙ্গ দেয়ার কেউ ছিল না। এরপর আর কোন ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্কের কোটা স্পর্শ করতে পারেন নি। নবম উইকেট হিসেবে মাহমুদুল্লাহ (৭৬) আউট হলে পরাজয় বরণ করতে হয় টাইগারদের। আর ফিল্ডিং করার সময় আহত হওয়ায় সাকিব আল হাসান ফাইনালে ব্যাট হাতে নামতে পারেন নি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ৫০ ওভারে ২২১ (গুনাথিলাকা ৬, থারাঙ্গা ৫৬, মেন্ডিস ২৮, ডিকভেলা ৪২, চান্দিমাল ৪৫, থিসারা ২, গুনারত্নে ৬, দনঞ্জয়া ১৭, মদুশঙ্কা ৭, লাকমল ২, চামিরা ১*; মিরাজ ১/৫৩, মাশরাফি ১/৩৫, মুস্তাফিজ ২/২৯, মাহমুদউল্লাহ ০/১৮, সাইফ ১/১৫, সাকিব ০/২০, রুবেল ৪/৪৬)।

বাংলাদেশ: ৪১.১ ওভারে ১৪২ (তামিম ৩, মিঠুন ১০, সাব্বির ২, মুশফিক ২২, মাহমুদউল্লাহ ৭৬, মিরাজ ৫, সাইফ ৮, মাশরাফি ৫, রুবেল ০, মুস্তাফিজ ০*; লাকমল ০/২৯, চামিরা ২/১৭, থিসারা ০/৩১, মাধুশাঙ্কা ৩/২৬, দনঞ্জয়া ২/৩০, গুনাথিলকা ০/৪)।

ফল: শ্রীলঙ্কা ৭৯ রানে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: উপুল থারাঙ্গা

ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট: থিসারা পেরেরা