রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ০২:৫৩

১০ উইকেটে হারলো স্বাগতিকরা

Published : 2018-01-25 11:51:00, Updated : 2018-01-25 15:59:11

অনলাইন প্রতিবেদক : ফাইনালের আগে লিগপর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শোচনীয় পরাজয় বরণ করতে হয়েছে স্বাগতিকদের। ভয়াবহ ব্যাটিং ব্যর্থতার দিনে ২৪ ওভারে মাত্র ৮২ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। ওয়ানডেতে টাইগারদের যেটি নবম সর্বনিম্ন। ৮৩ রানের লক্ষ্যে কোন উইকেট না হারিয়ে  মাত্র ১১.৫ ওভারেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় হাথুরুর শ্রীলঙ্কা।

এই জয়ে আগামী ২৭ জানুয়ারি (শনিবার) ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে সাকিব-তামিমদের মুখোমুখি হবে চান্দিমাল-পেরেরারা।

দীর্ঘদিন পর দলে ফিরেও নিজের প্রতি সুবিচার করতে পারলেন না এনামুল হক বিজয়। শূন্য রানে সুরঙ্গা লাকমলের বলে বোল্ড হয়ে ফিরতে হল তাকে। বিজয়ের বিদায়ের পর তামিমের সঙ্গী হয়েছিল সাকিব। তিনিও বেশিক্ষণ থাকতে পারলেন না ক্রিজে। ভুল বোঝাবুঝিতে দ্রুত রান নিতে গুনাথিলাকার থ্রোতে রান আউট হয়ে ফিরলেন সাকিবও।

সাকিবের পর স্কোরকার্ডে ১ রান যোগ হতেই লাকমলের বলে গুনাথিলাকার তালুবন্দী হয়ে ফিরতে হল বাংলাদেশের ভরসার প্রতীক তামিম ইকবালকেও। পরে লাকমলের বলে ফিরে গেলেন মাহমুদুল্লাহও। তার সংগ্রহ ২০ বলে ৭ রান। এরপর একে একে ২৪ ওভার খেলে ৮২ রানে সবগুলো উইকেটের পতন ঘটে স্বাগতিকদের।

ত্রিদেশীয় সিরিজে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ দল।

বৃহস্পতিবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে বেলা ১২টায় শুরু হওয়া এ ম্যাচে পরিবর্তন আনা হয়েছে টাইগারদের একাদশে।

ম্যাচের আগের দিন দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন নিজেদের শেষ ম্যাচে স্পেশালাইজড স্পিনার খেলানো হলেও এই ম্যাচে আসছে পরিবর্তন। মাশরাফি-মুস্তাফিজ-রুবেলের সঙ্গে যোগ দিতে পারেন চতুর্থ পেসার।

সে হিসেবে সানজামুল হকের পরিবর্তে দলে জায়গা পেয়েছেন তরুণ পেস অলরাউন্ডার আবুল হাসান রাজু।

ত্রিদেশীয় সিরিজে জিম্বাবুয়েকে দুইবার ও শ্রীলঙ্কাকে একবার হারিয়েছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ একাদশ:

তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), আবুল হাসান রাজু, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

শ্রীলঙ্কা একাদশ:

উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলাকা, কুসল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল (অধিনায়ক), আসেলা গুনারত্নে, নিরোশান ডিকওয়েলা (উইকেটরক্ষক), থিসারা পেরেরা, সুরঙ্গা লাকমল, লক্ষণ সান্দাকান, আকিলা ধনঞ্জয়া, দুশমান্থ চামিরা।