বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ০১:১৪

ব্যাংকে একই পরিবারের ৪ পরিচালক, সংশোধন বিল পাস

Published : 2018-01-17 08:33:00
ফাইল ফটো

অনলাইন ডেস্ক : ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে একসঙ্গে একই পরিবারের চার সদস্য থাকার সুযোগ তৈরিতে এবং পরিচালক পদে একটানা নয় বছর থাকার বিধান চালু হলো।

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদে ব্যাংক কোম্পানি আইন (সংশোধন) বিল পাস হয়েছে।

গত সেপ্টেম্বর মাসে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বিলটি উত্থাপন করেন। তবে গত বছরের ৮ মে মন্ত্রিসভার বৈঠকে সংশোধিত আইনের খসড়া অনুমোদনের পর থেকে ব্যাংক খাত সংশ্লিষ্টরা সরকারের এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে আসছেন।

নতুন এই সিদ্ধান্তে বেসরকারি ব্যাংকে ‘পরিবারতন্ত্র’ কায়েমের সুযোগ তৈরি হবে বলেও প্রতিক্রিয়া আসে। প্রভাবশালীদের সুযোগ দিতে আইনে এই সংশোধন আনা হচ্ছে বলেও অভিযোগ ওঠে।

বিলটি উত্থাপনের বিরোধিতা করে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সাংসদ ফখরুল ইমাম বলেছিলেন, এটা অনৈতিক। একজন ব্যক্তির স্বার্থে আইন হতে পারে না। ব্যাংকে একই পরিবারের দুজন থেকে চারজন করে পরিচালক করা হলে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হবে। এতে দেশে ফ্যামিলি ব্যাংকিং ব্যাংক দেখা যাবে। বেড়ে যাবে ব্যাংকের খেলাপি ঋণ। ফ্যামিলি ব্যাংক হলে অর্থনীতির আর কিছু বাকি থাকবে না। সব লুটপাট হয়ে যাবে। একমাত্র ব্যাংকের পরিচালকের আত্মীয়-স্বজনেরা সুবিধা পাবে, আর কেউ পাবে না।

পরিচালকের মেয়াদ বাড়ানোর প্রস্তাবের বিরোধিতা করে তিনি বলেছিলেন, এর ফলে যত দিন ব্যাংক থাকবে, তত দিন লুটপাটের ব্যবস্থা করে দেয়া হচ্ছে।

জবাবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছিলেন, ব্যাংক কোম্পানি আইনটি ১৯৯১ সালের। ২০১৭ সাল পর্যন্ত ১৭ বছরে অর্থনীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। এটা অকল্পনীয়। এ নতুন পরিস্থিতিতে কত টাকা বড় অঙ্ক, কত টাকা ছোট অঙ্ক, তা বদলে গেছে। আগে ব্যাংকে মূলধন লাগত আট কোটি, এখন ৪০০ কোটি লাগে।

উল্লেখ্য, এতদিন এক পরিবার থেকে সর্বোচ্চ দুজন সদস্য একটি ব্যাংকের পরিচালক হতে পারতেন। আর তিন বছর করে পরপর দুই মেয়াদে মোট ছয় বছর একই ব্যক্তি পরিচালক হতে পারতেন। এরপর তিন বছর বিরতি দিয়ে আবারও পরিচালক হতে পারতেন।