বুধবার ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ১২:০০

ভারতীয় বাহিনীর গুলিতে নিহত ৩ পাক সেনা

Published : 2017-12-26 15:04:00

অনলাইন ডেস্ক : পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের সেনা ঘাঁটিতে আক্রমণ চালিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ‘টার্গেটেড কিলিং’-এর জবাব ‘ক্রস বর্ডার রেড’। গত বছরের ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’-এর পর ভারতীয় সেনা আবারও এই ধরনের আক্রমণ চালিয়েছে।

গতকাল সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ পাক অধিকৃত কাশ্মীরের রাওলকোটের রুখ চাকরি সেক্টরে এই ‘ক্রস বর্ডার’ আক্রমণ চালানো হয়েছে।  আক্রমণ চালায় ভারতীয় সেনা। এতে ৩ পাক সেনা-জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও এক পাক জওয়ান। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে এই আক্রমণের কথা স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে।

নিহত পাক জওয়ানদের নাম সাজ্জাদ, আব্দুল রহমান এবং এম উসমান। আহত জওয়ানের নাম এ হুসেন। ভারত যে ধরনের আক্রমণ চালিয়েছে, তাকে সামরিক পরিভাষায় ‘ক্রস বর্ডার রেড’ বলা হয়। অর্থাৎ, নিয়ন্ত্রণ রেখা টপকে সেনা ঘাঁটি লক্ষ্য করে আক্রমণ চালানো।

গত শনিবার জম্মু-কাশ্মীরে ভারত-পাক নিয়ন্ত্রণরেখায় পাকিস্তান সেনার হামলায় প্রাণ হারিয়েছিলেন এক মেজরসহ চার ভারতীয় সেনা। সে দিন ভারতীয় সেনা দলকে নির্দিষ্ট ভাবে নিশানা করেই হামলা চালানো হয়েছিল। সামরিক পরিভাষায় যার নাম ‘টার্গেটেড কিলিং’। এ বার সেই ‘টার্গেটেড কিলিং’-এর জবাব ভারতীয় সেনা দিল ‘ক্রস বর্ডার রেড’-এর মাধ্যমে।

২০১৬ সাল থেকেই জঙ্গি হামলার পাশাপাশি পাক বাহিনীর বারংবার হামলায় জেরবার নিয়ন্ত্রণরেখা। তবে সেনা সূত্রের মতে, নৌশেরা সেক্টরে ছোটখাটো সংঘর্ষ বিরতি হলেও প্রায় মাস খানেক পরে গত শনিবার ফের বড় হামলা চালায় পাকিস্তান। ১৬ নভেম্বর পুঞ্চের শাহপুর ও দেগওয়ারে বড় ধরনের মর্টার হামলা চালিয়েছিল পাক সেনা। ফলে নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে গুলপুর ও নাকারকোট এলাকায় স্থানীয় স্কুল বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয় প্রশাসন। চলতি বছরে এখনও পর্যন্ত ৩০০ বার সংঘর্ষবিরতি ভেঙেছে পাকিস্তান। তাতে সেনা ও স্থানীয় বাসিন্দাসহ মোট ১২ জন নিহত হয়েছে। সূত্র: আনন্দবাজার