বৃহস্পতিবার ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮, ভোর ০৬:১২

ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ :

Published : 2017-12-24 14:55:00, Updated : 2017-12-24 16:34:13

অনলাইন ডেস্ক : সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরের ফাইনালে ভারতেকে ১-০ গোলে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ । শামসুন্নাহারের একমাত্র গোলে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরের শিরোপা জিতেছে স্বাগতিকরা ।

রোববার (২৪ ডিসেম্বর) ঢাকার কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে উত্তাপ ছড়ানো ম্যাচটিতে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতি যায় বাংলাদেশ । বিরতির পর দ্বিতীয়ার্ধের খেলা গোল শূন্যভাবে শেষ হয় । ফলে ১-০ গোলে জয় পায় বাংলাদেশ । 

দুদলই রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলছিল । তবে দ্রুতই প্রতিপক্ষের দূর্গে আক্রমণের পর আক্রমণ শুরু করে বাংলাদেশ । তারপরও গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে ৪২ মিনিট পর্যন্ত। এর আগে দুটি সহজ সুযোগও এসেছিল লাল-সবুজ জার্সিধারীদের সামনে । কিন্তু বাংলাদেশ সে সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারেনি ।

প্রথম সুযোগ এসেছিল ২২ মিনিটে। মারিয়ার মান্ডার দেয়া বল ধরে বক্সে ঢুকেছিলেন আনুচিং মগিনি। কিন্তু ভারতের গোলকিপারকে একা পেয়েও পরাস্ত করতে পারেননি । ম্যাচের ৩২তম মিনিটে বাঁ-দিক দিয়ে বক্সে ঢুকে তহুরা খাতুনের কোনাকুনি শট দ্বিতীয় পোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে যায়।

এদিকে ম্যাচটি ঘিরে দর্শকদের আগ্রহ দেখা গেছে প্রবল । কমলাপুরের স্টেডিয়ামে মেয়েদের ম্যাচটি দেখতে গ্যালারিতে প্রায় ৮-১০ হাজার দর্শক উপস্থিত ছিলেন । এর পেছনে অবশ্য মাইকিং আর মিডিয়ার বড় ভূমিকা আছে । দর্শকদের অনেকের হাতেই আছে জাতীয় পতাকা । নেচে গেয়ে চিৎকার করে তারা উৎসাহ দিয়েছেন কিশোরীদের।

২০১৬ সালে তাজিকিস্তানে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ ফুটবলেও ভারতকে দুই বার হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। এই টুর্নামন্টে জিতে আরেকবার নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করলো মারিয়া-তহুরারা ।

এর আগে ২১ ডিসেম্বর অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের রাউন্ড রবিন লিগে ভারতকে হারিয়ে টানা তৃতীয় জয় পেল বাংলাদেশ ।  ফাইনালের ‘মহড়ায়’ ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জয়ের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিল বাংলাদেশের মেয়েরা ।  ২৪ ডিসেম্বর শিরোপার লড়াইয়ে আবার মুখোমুখি হবে ভারত-বাংলাদেশ । বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) লাল-সবুজের মেয়েরা ৩-০ গোলে জয় পেয়েছে ।

ফলে রবিন লিগ পদ্ধতির চার দলের আসরে লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েই ফাইনালে উঠলো । খেলার শুরু থেকেই ভারতের ওপর চাপসৃষ্টি করতে থাকে বাংলাদেশ । পঞ্চম মিনিটে আঁখি খাতুনের শট বাইরের জাল কাঁপালে এগিয়ে যাওয়া হয়নি স্বাগতিকদের ।  একটু পর ডান দিক থেকে সাজেদার বাড়ানো ক্রস ছোট ডি-বক্সের মধ্যে পেয়ে যান ঋতুপর্ণা ।  কিন্তু এই মিডফিল্ডারের তাড়াহুড়ো করে নেওয়া শট ক্রসবারের ওপর দিয়ে উড়ে যায় । দ্বাদশ মিনিটে শামসুন্নাহারের ক্রসে গোলমুখে থেকে সাজেদা ক্রসবার উঁচিয়ে শট নিয়ে বাংলাদেশের হতাশা আরও বাড়ে।

চোট পাওয়া সাজেদাকে ২৫তম মিনিটে তুলে আনুচিংকে নামান কোচ । বদলি নামার সাত মিনিট পরই দলকে প্রতিক্ষিত গোল এনে দেন এই ফরোয়ার্ড । ডান দিক থেকে মনিকা চাকমার কর্নারে আনুচিংয়ের হেড জড়িয়ে যায় জালে । এরপর ডি বক্সের মধ্যে পাকপি দেবী মিডফিল্ডার শামসুন্নাহারকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি ।পেনাল্টি থেকে ডিফেন্ডার শামসুন্নাহার লক্ষ্যভেদ ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় ।  বাংলাদেশের মেয়েদের কৌশলের কাছে হেরে যায় ভারত  । ৫১তম মিনিটে ঋতুপর্নার ক্রসে আনুচিং গোলমুখ থেকে সুযোগ নষ্ট করেন । দুই মিনিট পর স্কোরলাইন ৩-০ করে নেয় বাংলাদেশ ।