সোমবার ২২ জানুয়ারি, ২০১৮, রাত ১০:৩১

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে নাকচ হলো ট্রাম্পের স্বীকৃতি

Published : 2017-12-22 10:57:00
অনলাইন ডেস্ক : হুমকি-ধমকি আর নানা হুঁশিয়ারির পরও জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বীকৃতি জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। একই সঙ্গে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী স্বীকৃতির বিষয়টি প্রত্যাহার করে নিতে হোয়াইট হাউসের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সাধারণ পরিষদ।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, বৃহম্পতিবার জেরুজালেম ইস্যুতে জাতিসংঘে উত্থাপিত প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে ১২৮ দেশ। বিপক্ষে ভোট দেয় ৯টি দেশ। আর ভোটদানে বিরত অর্থাৎ অনুপস্থিত থাকে ৩৫টি দেশ।

যদিও এই ভোটাভুটির আইনগত কোনো বাধ্যবাধকতা নেই, তবু একে জাতিসংঘের নীতিগত অবস্থানের বহিঃপ্রকাশ হিসেবে দেখা হবে। 

অবশ্য ভোটাভুটির আগের দিনই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, জেরুজালেম ইস্যুতে জাতিসংঘের যেসব দেশ যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের বাইরে যাবে, সেসব দেশে অর্থনৈতিক সহায়তা বন্ধ বা কাটছাঁট করে দেওয়া হবে।

এর আগে গত সোমবার জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতির বিরোধিতা করে একটি খসড়া প্রস্তাবনা উত্থাপন করে মিসর। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ১৫টি সদস্য দেশের মধ্যে ১৪টি দেশ সেটির পক্ষে ভোট দেয়। একমাত্র যুক্তরাষ্ট্রই বিপক্ষে ভোট দেয়।

প্রস্তাবনার বিপক্ষে ভোট দেওয়া দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে—যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল, গুয়েতেমালা, হন্ডুরাস, মাইক্রোনেশিয়া, নাইরু, পালাউ এবং টোগো। আর অনুপস্থিত ৩৫ দেশের মধ্যে কানাডা ও মেক্সিকো রয়েছে।

জেরুজালেম নগরীর অধিকার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ফিলিস্তিনি মুসলমান ও ইসরায়েলের ইহুদিদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছে। গত ৬ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস স্থাপনের ঘোষণা দেন।

যুক্তরাষ্ট্রের এই ঘোষণার পর থেকেই ফিলিস্তিনিজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। দেশটির পশ্চিম তীর, গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে একাধিক ফিলিস্তিনি নিহত ও কয়েক শতাধিক আহত হন।