সোমবার ২২ জানুয়ারি, ২০১৮, সন্ধ্যা ০৭:৪০

কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন রাহুল

Published : 2017-12-16 16:04:00

অনলাইন ডেস্ক : ভারতীয় কংগ্রেসের ৪৯ তম সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন সোনিয়াপুত্র রাহুল গান্ধী। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) দিল্লীর আকবর রোডের নিজ কার্যালয়ে তাঁর হাতে দলের সভাপতির ভার তুলে দেন বিদায়ী সভাপতি সোনিয়া গান্ধী। এর মধ্য দিয়ে কংগ্রেসের ৬ষ্ঠ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন গান্ধী পরিবারে এই সদস্য।  

এর আগে ১৯ বছর ধরে দলটির প্রধানের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন সোনিয়া গান্ধী। এদিকে রাহুলের হাতে দলের ভার তুলে দেওয়াকে, কংগ্রেস নেতারা বলছেন দলের জন্য এটি নতুন যাত্রা। এদিকে রাহুলকে সভাপতি ঘোষণা উপলক্ষ্যে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সকাল থেকেই ভিড় করে উৎসুক জনতা। বিশেষ করে দলের সব স্তরের নেতা-কর্মীরা আকবর রোড এলাকায় ঝড়ো হয়।

দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে কংগ্রেস নেতারা মহা ধুমধামের মধ্য দিয়ে দিনটিকে পালন করছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম। এ উপলক্ষে বিভিন্ন রাজ্য থেকে নৃত্যশিল্পীদের আনা হয়েছে।  একইসঙ্গে দিল্লীর সব রাস্তা ছেঁয়ে গেছে বিলবোর্ড আর পোস্টারে। কংগ্রেসের নতুন কাণ্ডারিকে অভ্যর্থনা জানাতে ব্যানারে ব্যানারে ঢেকে গেছে অন্যান্য রাজ্যগুলোও।

কংগ্রেসের মুখপাত্র রন্দীপ সূর্জেওয়াল বলেন, রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে জাতি গঠনে নতুন ভূমিকা নেবে কংগ্রেস। একইসঙ্গে ভবিষ্যতে দলের বর্তমান কাণ্ডারি সোনিয়া গান্ধীর বিষয়ে তিনি বলেন, সোনিয়া গান্ধী সভাপতি পদ থেকে অবসর গ্রহণ করলেও তিনি আমাদের পরামর্শ দিয়ে যাবেন। সোনিয়া গান্ধী ও মনমোহন সিং তাদের অভিজ্ঞতার মাধ্যমে দলে ভূমিকা রাখবেন।

এদিকে কংগ্রেসের সভাপতি হিসেবে দীর্ঘদিন দলটির প্রধান হিসেবে থাকা সোনিয়া গান্ধী দলের সব রেকর্ড ভেঙ্গেছেন। এর আগে কেউ এতদিন দলটির সভাপতির পদে থাকতে পারেননি। গত শুক্রবার এনডিটিভির কাছে দেওয়া এক বক্তব্যে সোনিয়া গান্ধী বলেন, আমি রাজনীতি থেকে পুরোপুরি অবসর গ্রহণ করবো। আমি খুব অসুস্থ, গত তিন বছর ধরে রাহুলই দলের সিদ্ধান্ত নিচ্ছে।

দলের সভাপতি নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমাদানের শেষ দিন ছিল ৪ ডিসেম্বর । তবে শেষ পর্যন্ত রাহুল ছাড়া আর কেউ মনোনয়ন পত্র জমা দেননি। রাহুলের পক্ষে মোট ৮৯টি মনোনয়ন পত্র জমা পড়েছে । এতে স্বাক্ষর করেছেন দলের হাইকমান্ড থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্তরের ৮৯০ জন নেতা। স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে আছেন কনগ্রেসের বর্তমান সভাপতি ও রাহুল গান্ধীর মা সোনিয়া গান্ধী। এছাড়া এ তালিকায় আছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংও। এদিকে ১১ ডিসেম্বর ছিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ।

তবে রাহুল ছাড়া আর কোন প্রার্থী না থাকায় গত ১৪ ডিসেম্বর রাহুলকে সভাপতি ঘোষণা করা হয়। আজ তার হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে দলটির দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়।

রাহুল গান্ধী ২০১৩ সাল থেকে দলটির সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছে। এদিকে তাঁর সভাপতি পদকে চ্যালেঞ্জ করে কেউ কংগ্রেস প্রার্থী না হওয়ায় বিজেপি এর তুমুল সমালোচনা করেছে।

সূত্র: এনডিটিভি