শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, রাত ১১:৩৪

গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনের শেষ দফার ভোট গ্রহণ আজ

Published : 2017-12-14 13:37:00

অনলাইন ডেস্ক : বিধানসভা নির্বাচনের চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে গুজরাট। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর) গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ। রাজ্যের মোট ১৮২টি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে ৯৩টিতে নির্বাচন আজ। এর আগে শনিবার (৯ ডিসেম্বর) ৮৯টি আসনে প্রথম দফার ভোট গ্রহণ হয়েছে। প্রথম দফায় ৬৬.৭৫ শতাংশ ভোট পড়েছে। গণনা আগামী ১৮ ডিসেম্বর।

আজ মোট ২৫ হাজার ৫৫৮টি বুথে ৮৫১ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারিত হচ্ছে। এর মধ্যে ৬৯ জন মহিলা প্রার্থী। উত্তর, পূর্ব, মধ্য গুজরাট এবং অমদাবাদ অঞ্চলে সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ পর্ব। শেষ হবে বিকেল ৫টায়। মোট ২ কোটি ২২ লাখ ৯৬ হাজার ৮৬৭ জন ভোটারের ভোট দেওয়ার কথা।

গত শনিবার রাজ্যে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ হয়। সে দিন দক্ষিণ গুজরাট, সৌরাষ্ট্র, কচ্ছ এবং কাঠিয়াবাড় অঞ্চলে মোট ২ কোটি ১২ লাখ ৩১ হাজার ৬৫২ জন ভোটার ৯৭৭ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ করেছেন। রাজ্যে গত ২২ বছর ধরে ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি। আর কংগ্রেস বিরোধী আসনে।

এর আগের তিনটি বিধানসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদীই ছিলেন এ রাজ্যে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী। কিন্তু, এখন তিনি প্রধানমন্ত্রী। আবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের আপন রাজ্যও এই গুজরাট। ফলে বিজেপি-র কাছে এই নির্বাচন সব অর্থেই সম্মান রক্ষার লড়াই। অন্য দিকে, বিরোধী কংগ্রেসও এ বার অনেক চাঙ্গা। ক্ষত্রিয়-হরিজন-আদিবাসী-মুসলিম, এই পরিচিত ভোটব্যাঙ্ক ছাড়াও কংগ্রেস এ বার হাত বাড়িয়েছে পাতিদার, ওবিসি এবং দলিত ভোটব্যাঙ্কের দিকে।

অতএব, দেড় দশক পর এ রাজ্যে বিজেপির জন্য একটা বড় চ্যালেঞ্জ কংগ্রেস। এ রাজ্যে পতিদার এবং পটেল ভোট ১৩ শতাংশ থেকে ১৫ শতাংশ। এর মধ্যে লেউভা পটেল ৮.১১ শতাংশ। কড়ভা পটেল ৬.৪২ শতাংশ। মুসলিম ভোট ৯.১ শতাংশের মতো। আদিবাসী বা তফসিলি উপজাতি ভোট প্রায় ১৫ শতাংশ। তফসিলি জাতির ভোট ৭.১ শতাংশ। ব্রাহ্মণ ভোট ১০ শতাংশ।

২০১৫ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনের হিসাব বলছে, ২৩টি জেলা পঞ্চায়েতের মধ্যে ১৯টিতেই কংগ্রেস জয়ী হয়েছিল। তালুকা পঞ্চায়েত স্তরেও কংগ্রেস অনেক এগিয়ে ছিল বিজেপির থেকে। কিন্তু, গুজরাটে শহুরে ভোটও অনেক। সেখানে বিজেপি-র দাপট নাকি এখনও বেশি। তাই শেষ দফাতেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছে। সূত্র: আনন্দবাজার