মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৮, রাত ০৪:১৪

মিয়ানমারে 'রোহিঙ্গা' শব্দটি না বলার ব্যাখ্যা দিলেন পোপ

Published : 2017-12-03 15:02:00, Updated : 2017-12-03 15:07:32

অনলাইন ডেস্ক : মিয়ানমার সফরে পোপ ফ্রান্সিস তাঁর ভাষণে একবারও 'রোহিঙ্গা' শব্দটি উচ্চারণ করেননি। এক সপ্তাহ ধরে এ বিষয়টি নিয়ে তুমুল সমালোচনার পর শনিবার (২ ডিসেম্বর) পোপ ফ্রান্সিস তার সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দিলেন।

পোপ ফ্রান্সিস বলেছেন, 'রোহিঙ্গা' শব্দটি না করার কারণ হলো এতে মিয়ানমারের নেতাদের সঙ্গে সংলাপের পথ বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা ছিল। সেই ঝুঁকি তিনি নিতে চাননি বলেই 'রোহিঙ্গা' শব্দটি উচ্চারণ করেননি। শনিবার বাংলাদেশ সফর শেষে ফিরে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পোপ ফ্রান্সিস তাঁর ওই সিদ্ধান্তের এমন ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, "আমি যদি শব্দটি উচ্চারণ করতাম, তাহলে সব আলোচনার পথ বন্ধ হয়ে যেত।"

তিনি বলেন, "বিষয়টি সম্পর্কে আমি কি ভাবছি তা সবার জানা। ব্যক্তিগত ওই বৈঠকগুলো আমি ভেস্তে যেতে দিতে চাইনি। বৈঠকগুলো হওয়ায় আমি বেশ সন্তুষ্ট। আর 'রোহিঙ্গা' শব্দটি উচ্চারণ না করেও ওই সকল বৈঠকেই মূল বার্তাটি আমি পৌঁছে দিতে পেরেছি।"

পোপ ফ্রান্সিস জানান, রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনার জন্যই তিনি মিয়ানমার সফর গিয়েছিলেন। শরণার্থীশিবিরে যাওয়ার ইচ্ছা থাকলেও সংগত কারণেই সেখানে সফর করা তাঁর পক্ষে সম্ভব হয়নি। পোপ বলেন, আয়োজকরা যখন তাঁর সঙ্গে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সাক্ষাৎ করানোর জন্য নিয়ে এসেছিলেন, তখন তাঁদের যথাযথ সম্মান দিয়ে নিয়ে আসা হয়নি। বিষয়টি তাঁকে কষ্ট দিয়েছে। তিনি অনুষ্ঠানে আগত সব রোহিঙ্গা সদস্যদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনেছেন।

উল্লেখ্য, পোপ ফ্রান্সিস গত ২৮ নভেম্বর মিয়ানমার সফরে যান। সেখানে তিনি মিয়ানমারের সেনাপ্রধান জেনারেল মিন অং হ্লাইং এবং নেত্রী অং সান সুচির সঙ্গে বৈঠক করেছেন। সূত্র: সিএনএন