বুধবার ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮, বিকাল ০৩:৫২
ব্রেকিং নিউজ

■  পশুখাদ্য মামলায় ফের ৫ বছরের কারাদ্ণ্ড লালুপ্রসাদের ■  আ.লীগ ৪০টির বেশি আসন পাবে না : জানালেন মোশাররফ ■  নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া নির্বাচন হবে না: হুশিয়ারি ফখরুলের ■  ২৯ জানুয়ারি ছাত্র ধর্মঘট ডেকেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট ■  চবিতে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যের মিছিলে ছাত্রলীগের হামলা ■  ঢাবি উপাচার্যকে হেনস্তার ঘটনায় ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি ■  আফগানিস্তানে ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ কার্যালয়ে হামলা, আহত ১১ ■  ঢাবিতে অরাজকতা হতে দেওয়া হবে না: হুশিয়ারি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ■  ভিসির কার্যালয়ে গেট ভাঙ্গার বিচার হবে: কাদের ■  জয়নাব ধর্ষণ ও হত্যার মূল সন্দেহভাজন গ্রেপ্তার ■  সেনাপ্রধানের বাবা শরিফুল হকের ইন্তেকাল ■  ভেনেজুয়েলায় আগাম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ঘোষণা ■  কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বেসরকারি খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে : প্রধানমন্ত্রী

রোহিঙ্গা শব্দটি উচ্চারণ করলেন পোপ ফ্রান্সিস

Published : 2017-12-01 23:29:00

অনলাইন ডেস্ক : মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা জনগোষ্ঠিকে অবশেষে রোহিঙ্গা বললেন ক্যাথলিক ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস। নির্যাতিত এই জনগোষ্ঠিকে রোহিঙ্গা না বলতে পোপের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছিল। মিয়ানমার সফরকালে তিনি একবারও রোহিঙ্গা শব্দ বলেননি।

শুক্রবার (০২ ডিসেম্বর) রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ১৬ জনের একটি দলের  সঙ্গে সাক্ষাতের সময় পোপ ফ্রান্সিস রোহিঙ্গা শব্দটি উচ্চারণ করেন। খবর বিবিসির।

সীমান্ত এলাকার রোহিঙ্গা শিবির থেকে ১৬ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে ঢাকায় পোপের সঙ্গে সাক্ষাৎ করানো হয়। এ সময় পোপ ফ্রান্সিস বলেন, আজ ঈশ্বরের উপস্থিতির আরেক নাম রোহিঙ্গা।

আজ সফরের দ্বিতীয়দিন পোপ ফ্রান্সিস সকালে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রায় ৮০ হাজার ভক্তের অংশগ্রহণে এক বিশেষ প্রার্থনাসভায় পৌরহিত্য করেন। প্রার্থনা ও বিশ্বাসের মধ্য দিয়ে এসময় সবাইকে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান ক্যাথলিক প্রধান ধর্মগুরু। ঢাকায় কর্মরত বিভিন্ন দেশের খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিকরাও এতে যোগ দেন।  

বিকেলে রাজধানীর কাকরাইলের রমনা ক্যাথিড্রালে যান পোপ ফ্রান্সিস। সেখানে আর্চবিশপ হাউজে তিনি বিশপদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর পোপ ফ্রান্সিস সেখানে আন্তঃধর্মীয় বৈঠকটিতে অংশ নেন। তিন দিনের সফরে বৃহস্পতিবার বিকেলে মিয়ানমার থেকে ঢাকা পৌঁছান পোপ ফ্রান্সিস। বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।