মঙ্গলবার ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮, বিকাল ০৫:৪৯

সান্তাহারের ২০শয্যা হাসপাতাল উদ্বোধনের প্রায় এক যুগেও চালু হয়নি

চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত এলাকাবাসী

Published : 2017-11-28 19:43:00, Updated : 2017-11-28 19:46:56

অনলাইন ডেস্ক : বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহার রথবাড়িতে ২০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল উদ্বোধনের ১১ বছর পেরিয়ে গেলেও চালু না হওয়ায় এলাকাবাসী তাদের চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

ফলে হাসপাতালটির চারিপার্শ্বে আগাছায় ভরপুর ও মাদকসেবীদের আখড়ায় পরিণত হলেও যেন দেখার কেউ নেই। কবে নাগাদ হাসপাতালটি চালু হবে তারও কোন কুলকিনারা নেই কর্তৃপক্ষের নিকট।

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবী ও কাঙ্খিত সান্তাহার পৌরশহরে একটি হাসপাতাল নির্মান করা। এই দাবীর প্রেক্ষিতে ২০০৫ সালে সি.এম.এম.ইউ এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ও তত্ত্বাবধানে প্রায় ৩ কোটি ৩৩ লাখ ১২ হাজার টাকা ব্যয়ে সান্তাহার রথবাড়ি এলাকায় ২০শয্যা বিশিষ্ট একটি হাসপাতাল নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়।

এই হাসপাতালটির প্রায় ৮০ ভাগ নির্মান কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর হঠাৎ করে বাঁকি অংশের কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এমতাবস্থায়  ২০০৬ সালের ২২অক্টোবর ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে হাসপাতালটি উদ্বোধন করা হয়।

দীর্ঘ প্রায় একযুগেও চালু না করে অভিভাবকহীন ভাবে হাসপাতালটি ফেলে রাখা হয়। বর্তমানে হাসপাতালটির চারপাশে আগাছায় ভরপুর ও মাদকসেবীদের আখড়ায় পরিণত হয়েছে। যেখানে রোগীদের সেবা পাওয়ার কথা সেখানে এখন চলছে নানা অপকর্ম ও একশ্রেনির স্কুল ও কলেজগামী ছাত্রদের আনাগোনা ও মাদকসেবন।

এলাকাবাসী জানান, এখন হাসপাতালটির রক্ষনাবেক্ষন না থাকায় নানা ধরনের অপকর্ম এবং মাদকসেবীদের অবাধ বিচরণর আর আখড়ায় পরিণত হওয়ায় স্থানীয় বাসিন্দাদের স্বাভাবিক চলাচল মারাত্মক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। হাসপাতালটি চালু না হওয়ায় পৌরশহরসহ এলাকার হাজার হাজার মানুষ স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। সান্তাহার পৌর শহরে অবস্থিত ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটির বাঁকি অংশ নির্মান করে কার্যক্রম দ্রুত চালু করার জন্য সচেতন মহল দাবী জানান।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ শহিদুল্লাহ দেওয়ান জানান, সান্তাহার রথবাড়িতে অবস্থিত অসমাপ্ত ২০শয্যা হাসপাতালটিতে শুধু মাত্র একজন নার্স নিয়োগ দেয়া হলেও হাসপাতাল হস্তান্তর না করায় ও পরিবেশ না থাকায় চালু করা সম্ভব হচ্ছেনা।