শনিবার ২০ জানুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ০১:২১

খাদিজা হত্যাচেষ্টায় বদরুলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

Published : 2017-03-08 14:25:00

অনলাইন প্রতিবেদক : কলেজ শিক্ষার্থী খাদিজা বেগম নার্গিস হত্যাচেষ্টা মামলায় বদরুল আলমের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছে। বুধবার (০৮ মার্চ) দুপুরে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধা এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালতের পিপি মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ জানান, যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে বিচারক আকবর হোসেন মৃধা আসামি বদরুল আলমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। রায়ে পাশাপাশি পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও দুই মাসের সাজার কথাও বলা হয়েছে।

সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক (পাস কোর্স) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী খাদিজা ২০১৬ সালের ৩ অক্টোবর সিলেটের এমসি কলেজ কেন্দ্রে স্নাতক পরীক্ষা দিয়ে বের হয়ে হামলার শিকার হন। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে তারা মাথায় মারাত্মক জখম করে। ঘটনার পরদিন খাদিজার চাচা আব্দুল কুদ্দুস বাদী হয়ে শাহপরান থানায় মামলা করেন।

হামলার পর শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুলকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে জনতা। হামলার ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে প্রতিবাদে ও বিচার দাবিতে দেশব্যাপী মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ হয়।

মারাত্মক আহত নার্গিসকে উদ্ধারের পর সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ও পরে ঢাকায় স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তিন দফা অস্ত্রোপচারের পর তাকে সাভারের সিআরপিতে পাঠানো হয়। সেখানে তিন মাসের চিকিৎসা শেষে চলতি সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি বাড়ি ফিরেন নার্গিস।

গত বছরের ৫ অক্টোবর বদরুল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। পরে তাকে কারাগারে পাঠান আদালত। ৮ নভেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহপরান থানার এসআই হারুনুর রশীদ আদালতে বদরুল আলমকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। ১৫ নভেম্বর আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। ২৯ নভেম্বর আদালত বদরুলের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর নির্দেশ দেন। ২৬ ফেব্রুয়ারি আদালতে সাক্ষ্য দেন খাদিজা।