মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৮, বিকাল ০৫:৫২

কুবিতে ৭ মার্চের আনন্দ শোভাযাত্রা হয়নি

Published : 2017-11-25 19:34:00, Updated : 2017-11-25 20:08:21
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো কর্তৃক বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের অংশ ঘোষণা করায় সারাদেশে শনিবার আনন্দ শোভাযাত্রা হয়। কিন্তু কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি)হয়নি। সরকারের এ সিদ্ধান্তকে বাস্তবায়নে পদক্ষেপ নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

এদিকে শিক্ষক সমিতির বিরুদ্ধে উপাচার্যের কাছে মিথ্যাচার করে রেজিস্ট্রার আনন্দ শোভাযাত্রা আয়োজন করেননি বলে অভিযোগ উঠেছে। আনন্দ শোভাযাত্রা না হওয়ায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্রদের প্রগতিশীল সংগঠনসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, ইউনেস্কো কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণকে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের অংশ ঘোষণা করায় শনিবার সারাদেশে আনন্দ শোভাযাত্রা পালনে সরকারের নির্দেশ ছিল। কর্মসূচি পালনের জন্য গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন’র (ইউজিসি) চিঠি আসে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে। তবে সারাদেশে এক যোগে আনন্দ শোভাযাত্রা পালিত হলেও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন আনন্দ শোভাযাত্রার আয়োজন করেনি বিশ্ববিদ্যালয়টির কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষক-শিক্ষার্থীর সাথে কথা বললে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘আনন্দ শোভা যাত্রা না করে সরকারের সিদ্ধান্তকে প্রশাসন বৃদ্ধাঙ্গালি দেখিয়েছে।’

এ দিকে আনন্দ শোভাযাত্রার আয়োজন না করে উল্টো শিক্ষক সমিতির নামে উপাচার্যের কাছে মিথ্যাচারের অভিযোগ উঠেছে খোদ রেজিস্ট্রার মো: মজিবুর রহমান মজুমদারের বিরুদ্ধে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপাচার্য শোভাযাত্রায় অংশ নিলে শিক্ষক সমিতি বাধা দিবে এমন তথ্য উপাচার্যের কাছে উপস্থাপন করেন রেজিস্ট্রার। একই কথা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতিকেও জানিয়েছেন রেজিস্ট্রার। তবে রেজিস্ট্রারের সাথে শিক্ষক সমিতির এ বিষয়ে কোন কথা হয়নি বলে শিক্ষক নেতারা জানান।

ক্ষোভ প্রকাশ করে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাবেক সভাপতি এন এম রবিউল আউয়াল চৌধুরী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কোন দলের নয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন মিথ্যা অজুহাতে সরকারের সিদ্ধান্ত পালন না করে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে। এটা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।’

তবে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান বলেন, ‘রেজিস্ট্রার এ বিষয়ে শিক্ষক সমিতির সাথে কোন ধরণের আলোচনা করেননি। তিনি সরকারের এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন না করে  কোন আদর্শকে বাস্তবায়ণ করলেন এখন এটাই প্রশ্ন।’

আনন্দ শোভাযাত্রা নিয়ে কেন মিথ্যাচার করা হয়েছে এমন প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়ে রেজিস্ট্রার মো: মজিবুর রহমান মজুমদার বলেন, ‘শনিবার ছুটির দিন হওয়ায় সম্ভব ছিল না। সোমবার কর্মসুচি পালন করা হবে।’ সরকারের ঘোষিত কর্মসূচি কি ছুটিতে হওয়ার বাধা আছে এমন প্রশ্নে তিনি কোন উত্তর দেননি।

বিষয়টি নিয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আলী আশরাফ বলেন, ‘রেজিস্ট্রার আমাকে জানিয়েছে আমি অংশগ্রহণ করলে শিক্ষক সমিতি র‌্যালি করতে দিতে আগ্রহী নয়। রেজিস্ট্রার  শিক্ষক সমিতির সাথে কথা বলেছে বলে আমাকে জানিয়েছেন।’