শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ০১:৪১

আবু হেনা মোস্তফা কামালের মৃত্যু

Published : 2017-09-23 15:37:00, Updated : 2017-09-23 15:41:49
আবু হেনা মোস্তফা কামাল একাধারে শিক্ষাবিদ, সাহিত্যিক, গীতিকার ও গবেষক। ১৯৩৬ সালের ১১ মার্চ পাবনা জেলার উল্লাপাড়ার গোবিন্দা গ্রামে তিনি জন্ম নেন। কর্মজীবনে রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও বাংলা একাডেমির মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকা অবস্থায় সাহিত্য ও সংগীতচর্চায় জড়িয়ে পড়েন। এ সময় মোহাম্মদ মাহফুজউল্লাহ সহযোগে আবু হেনা ১৯৫৪ সালে পূর্ব বাংলার কবিতা নামে একটি সঙ্কলনগ্রন্থ প্রকাশ করেন। আবু বকর খানের গাওয়া বিখ্যাত গান ‘সেই চম্পা নদীর তীরে’ আবু হেনারই লেখা। তিনি ঢাকা বেতারের নিয়মিত শিল্পী ছিলেন। অন্তরঙ্গ অনুভব, গাঢ় আবেগ, রোমান্টিক আর্তি এবং কখনো কখনো স্বদেশবোধের শিল্পিত পরিচর্যা তাঁর কবিতা ও গানগুলোকে বিশিষ্টতা দিয়েছে। তিনি ছিলেন বাংলা গানের এক উজ্জ্বল বাণীকার, টেলিভিশনের বাককুশল রসিক উপস্থাপক ও আলোচক।

লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘The Bengali Press and Literary Writing : 1818-1831’ শীর্ষক গবেষণার জন্য তিনি পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। সাহিত্যপাঠের ব্যাপকতা, সাহিত্যবোধের রসঘনতা এবং ভাষা-পরিচর্যা তাঁর গদ্য রচনায় স্বতন্ত্র স্বাদ সৃষ্টি করেছে। প্রবন্ধ, গবেষণাধর্মী লেখা, সমালোচনা, ভাষ্য-সব ধরনের গদ্য রচনার বক্তব্য, ভাষা, উপস্থাপনা ও ভঙ্গিতে তাঁর স্বকীয়তা সুস্পষ্ট। আবু হেনা বাংলা সাহিত্য ও বিশিষ্ট সাহিত্যিকদের মূল্যায়ন করে কিছু উল্লেখযোগ্য প্রবন্ধ লিখেছেন এবং সেগুলো তাঁর শিল্পীর রূপান্তর এবং কথা ও কবিতা নামে দুটি প্রবন্ধ-সঙ্কলনে স্থান পেয়েছে। বাংলাদেশের সাহিত্য-সমালোচনায় তাঁর এই গ্রন্থ দুটি বিশিষ্টতার দাবি রাখে।

আবু হেনার তিনটি কাব্যগ্রন্থ আপন যৌবন বৈরী, যেহেতু জন্মান্ধ ও আক্রান্ত গজল; আমি সাগরের নীল তাঁর গানের সঙ্কলন। তিনি একসময় সাময়িক পত্রিকায় সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সরস কলাম লিখে প্রশংসিত হন। সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে বিশেষ অবদানের জন্য তিনি আলাওল সাহিত্য পুরস্কার, সুহূদ সাহিত্য স্বর্ণপদক, একুশে পদক, আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ স্বর্ণপদক, সাদত আলী আকন্দ স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত হন। ১৯৮৯ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর তিনি মারা যান।