শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, সকাল ০৭:৪৯

এক পরিবারের ১৪ জন মোবাইল চোর!

Published : 2017-09-21 13:29:00

অনলাইন ডেস্ক : দিল্লির বিভিন্ন মেট্রো স্টেশন থেকে মোবাইল চুরির খবর পাওয়া যাচ্ছিল বেশ কিছু দিন ধরে। প্রায় প্রতিদিনই ২০ থেকে ২৫টি অভিযোগ আসছিলো পুলিশের কাছে। এত অভিযোগের প্রেক্ষিতে দিল্লি পুলিশ তদন্ত শুরু করে। গত সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) পুলিশ একজনকে ধরতে সমর্থ হয়।

দিল্লি পুলিশ সূত্রের খবর অনুযায়ী, ১৪ জনের একটি দল বেশ কিছু দিন ধরেই চুরি করছে বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনে। চোরেরা প্রত্যেকে একই পরিবারের সদস্য। আটককৃতদের মধ্যে বেশ কয়েক জন নাবালকও রয়েছে। দিল্লি মেট্রো পুলিশের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সোমবার দুপুরে গ্রেফতার করা হয় বচ্চন সিংহ নামে এক অভিযুক্তকে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে চুরির কথা স্বীকার করে। তার কাছ থেকেই তদন্তকারীরা জানতে পারেন ৬ জন নাবালকসহ ১৪ জনের এই দলের কথা।

জিজ্ঞাসাবাদের সময় বচ্চন জানায়, তাঁর সঙ্গীরা সবজি মান্ডি থানার কাছে একটি পার্কে বিশ্রাম নিচ্ছে। এর পরই কাশ্মীরি গেট মেট্রোর পুলিশ সেখানে হানা দেয়। বাকি ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাঁদের কাছ থেকে ২৪টা মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃতরা সবাই আগরার কাছে বিষ্ণুপুরা গ্রামের বাসিন্দা।

তদন্তকারীদের দাবি আটককৃতরা জানিয়েছেন, তাঁদের গ্রামের অনেকেই চুরি করে। অন্য সময় চাষ বা জুতো সারাইয়ের কাজ করে। কিন্তু মোবাইল ফোন চুরিই তাঁদের আসল পেশা। তদন্তের পর পুলিশ জানতে পেরেছে, মাস কয়েক আগে ওই পরিবারের কয়েক জন দিল্লিতে এসেছিলেন। তখনই তাঁরা বুঝতে পারে, মেট্রো যাত্রীদের কাছ থেকে মোবাইল ফোন চুরি করা খুব সহজ। এর পর গোটা পরিবার মেট্রোয় মোবাইল ফোন চুরির পরিকল্পনা করে। ৫-৬ জনের দু’টি দলে ভাগ হয়ে তাঁরা মেট্রোয় উঠে মোবাইল চুরি করত। 'টার্গেট'কে অন্যমনস্ক করে দিত এক জন। তার সঙ্গে থাকা অন্য জন মোবাইল চুরি করে দলের অপর এক সদস্যর কাছে পাচার করে দিত। সূত্র: আনন্দবাজার