মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, সকাল ০৭:৫২

জাতিগত নিধনের অভিযোগ অস্বীকার মিয়ানমারের

Published : 2017-09-13 23:41:00, Count : 167
সকালের খবর ডেস্ক: মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নকে জাতিগত নিধনের উদাহরণ হিসেবে গত সোমবার আখ্যায়িত করেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার জেইদ রাদ-আল হুসেইন। এদিন জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের ৩৬তম অধিবেশনে দেওয়া বক্তৃতায় জেইদ এ মন্তব্য করেন। অধিবেশনে জেইদ বলেন, মিয়ানমারের ওই অভিযান স্পষ্টত ভয়াবহ এবং আন্তর্জাতিক আইনের মৌলিক নীতির লঙ্ঘন।
জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের এই মন্তব্যের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে মিয়ানমার। তারা জাতিগত নিধনের অভিযোগ অস্বীকার করার পাশাপাশি জেইদের মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে। রাখাইনে সহিংসতার জন্য রোহিঙ্গাদের দায়ী করেছেন জাতিসংঘে মিয়ানমারের দূত।
জেইদের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলে মিয়ানমারের দূত দাবি করেন, অভিযোগ ঠিক নয়। মানবতাবিরোধী অপরাধ ও জাতিগত নিধনের মতো অভিধা গুরুতর অর্থ বহন করে। তাই তা ব্যবহারে সর্বোচ্চ দায়িত্বশীল হওয়া উচিত। কেননা এই অভিধাগুলো আইন-বিচারের মাধ্যমে নির্ধারিত হয়।
রাখাইনে সহিংসতার মুখে সেখান থেকে ৩ লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।
জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গতকাল রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা।
গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে তল্লাশি চৌকিতে হামলা হয়। এরপর দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী রাখাইনে সহিংস অভিযান শুরু করে।

আরও খবর