বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর, ২০১৭, রাত ১২:২১

মিয়ানমারকে কঠোর শাস্তি দেওয়ার হুমকি আল-কায়েদার

Published : 2017-09-13 17:29:00,

অনলাইন ডেস্ক : মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে মুসলিম রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বিরুদ্ধে দেশটির সেনাবাহিনী যে সহিংসতা চালাচ্ছে তার জন্য কঠোর শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়েদা। বার্তাসংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে রোহিঙ্গা বিদ্রোহী জনগোষ্ঠী সেনা ও পুলিশ ক্যাম্পে হামলা চালায় বলে অভিযোগ মিয়ানমার সরকারের। এরপরই হামলা-নির্যাতন-ধর্ষণের শিকার প্রায় তিন লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে চলে এসেছে। পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলিমদের অভিযোগ, বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারের সেনাবাহিনী পুরুষদের ধরে নিয়ে হত্যা করছে, নারীদের ধর্ষণ করছে এবং মুসলিম অধ্যুষিত গ্রামগুলো জ্বালিয়ে দিচ্ছে।

মুসলিম রোহিঙ্গা বিদ্রোহীরাই বাড়িঘরে আগুন দিচ্ছে, মিয়ানমার সরকার এমন দাবি করলেও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা এবং গণমাধ্যম জানিয়েছে, সহিংসতার শিকার প্রায় তিন হাজার রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী জঙ্গি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণকারী যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান 'সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ' এর বরাত দিয়ে রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আল-কায়েদা সারা বিশ্বের মুসলিমদের প্রতি অস্ত্রসহ অন্যান্য 'সামরিক সাহায্য' নিয়ে নিপীড়িত রোহিঙ্গা মুসলিমদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহ্বান জানিয়েছে। আল-কায়েদা বলেছে, "আমাদের মুসলিম ভাইদের প্রতি ভয়ানক আচরণ করা হচ্ছে, কোনো ধরনের শাস্তি ছাড়া আমরা এটি ছেড়ে দেবো না।"

মিয়ানমার মুসলিম ভাইদের জন্য যে ধরনের দুর্ভোগের পরিস্থিতি তৈরি করেছে, একই দুর্ভোগ তাদেরও মোকাবিলা করতে হবে বলে হুমকি দিয়েছে আল-কায়েদা। এই জঙ্গি সংগঠনটি বিবৃতিতে আরো জানিয়েছে, "আমরা বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও ফিলিপাইনের মুজহিদ ভাইদের মিয়ানমারের নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলিমদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। প্রশিক্ষণসহ প্রয়োজনীর প্রস্তুতি নেওয়া, যাতে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়।"