মঙ্গলবার ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮, রাত ১১:৪৬

সংশোধিত ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় স্বাক্ষর, বাদ দেয়া হলো ইরাককে

Published : 2017-03-07 13:37:00
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্র্রাম্প সোমবার (৭ মার্চ) যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী এবং শরণার্থীদের ওপর নতুন করে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় স্বাক্ষর করেছেন। গ্রীণকার্ডধারী এবং ইরাকি নাগরিকদের সংশোধিত ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।   

প্রথম নিষেধাজ্ঞাটি ফেডারেল আদালতে স্থগিত হওয়ায় নতুন করে জারিকৃত আদেশের মাধ্যমে বিশ্বের ছয়টি মুসলিম দেশের অস্থায়ী অভিবাসী এবং শরণার্থী আগামী ১২০ দিন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে দেয়া হবেনা না। সিরিয়া, ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, ইয়েমেন এবং সুদানের নাগরিকরা মার্কিন ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবে না।

হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে ট্রাম্প সোমবার সকালে অনাড়ম্বরভাবে সংশোধিত ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় স্বাক্ষর করেছেন। নতুন এ আদেশ ১৬ মার্চ থেকে কার্যকর হবে। হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র শন স্পাইসার বলেছেন, "নির্বাহী আদেশ থেকে ইরাক বাদ পড়লেও এর নিয়মকানুন আগের মতোই আছে।"

অপরদিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন বলেছেন এ পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে জাতীয় নিরাপত্তার ব্যবস্থা আরো মজবুত হয়েছে। পাশাপাশি ট্রাম্প প্রশাসনের বিতর্কিত অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস বলেছেন কারা যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ করছে এটি জানতে হবে। এ নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে সে প্রক্রিয়াটি সহজতর হয়েছে। সেশনস ইরান, সুদান এবং সিরিয়ার নাম উল্লেখ করে বলেন এই তিনটি রাষ্ট্র সন্ত্রাসবাদের মদদদাতা।

অপরদিকে লিবিয়া, সোমালিয়া এবং ইয়েমেনকে সন্ত্রাসীদের আত্মগোপনের উৎকৃষ্ট স্থান বলে উল্লেখ করেন সেশনস। অবশ্য এরই মধ্যে ট্রাম্পের নতুন নির্বাহী আদেশ নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে। মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে এই আদেশ সম্পূর্ণ মুসলিম কেন্দ্রীক। বিশেষজ্ঞদের মতে এই নির্বাহী আদেশ আবারও আইনি চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হবে। সূত্র: এএফপি