সোমবার ২২ জানুয়ারি, ২০১৮, রাত ১২:৩৫

ঘোষণা অনুযায়ী চালের খালাস কার্যক্রম শুরু

Published : 2017-08-19 13:10:00

অনলাইন প্রতিবেদক : সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী আমদানি মূল্যের দু শতাংশ হারে শুল্কের বিনিময়ে বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে আসা প্রতি মেট্টিক টন চালের খালাস কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শুক্রবার (১৮ আগস্ট) বেনাপোল বন্দরে চার হাজার মেট্টিক টন চাল খালাস হয়েছে ।

বর্তমানে ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্যের মধ্যে ৬০ শতাংশ চাল। আগে প্রতি মেট্টিক টন চালে আমদানি মূল্যের ২৮ শতাংশ হারে শুল্ক পরিশোধ করতে হতো আমদানিকারকদের।

পরে সরকার শুল্ক কমিয়ে ১০ শতাংশ করে। বর্তমানে দেশে বন্যার কারণে চালের মূল্য আরও কমাতে সরকার ১০ শতাংশ থেকে ৮ শতাংশ কমিয়ে ২ শতাংশ শুল্ক নির্ধারণ করেছে।

সিঅ্যান্ডএফ সূত্রে জানা যায়, প্রতি মেট্টিক টন চাল ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে ৩৯০ মার্কিন ডলারে, যা বাংলাদেশি টাকায় ৩১,৯৮০ টাকা। প্রতি মেট্টিক টনে সরকারকে ২ শতাংশ হারে শুল্ক পরিশোধ করতে হচ্ছে, যার পরিমাণ ৬৭৬ টাকা, প্রতি কেজিতে যার পরিমাণ দাঁড়ায় সাড়ে ৬৭ পয়সা।

আমদানিকারকের এলসি খরচ, ট্রাক ভাড়াসহ অন্যান্য খরচ মিলিয়ে প্রতি কেজি চালে আরও খরচ হচ্ছে ১ টাকা ২৫ পয়সা। এ হিসাবে বেনাপোল বন্দর থেকে প্রতি কেজি চাল খালাসে ক্রয়মূল্যসহ খরচ পড়ছে সর্বোচ্চে ৩৪  টাকা।

আমদানিকারকেরা এই চাল বেনাপোল বন্দর থেকে বাইরের ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করছেন প্রতি কেজি ৩৬ টাকা ৫০ পয়সা থেকে ৭০ পয়সা দরে। খোলা বাজারে এই চাল সাড়ে ৩৭ থেকে ৩৮ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হবে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।