মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৮, দুপুর ০২:১২

মুখ খুললেন পরমব্রত

Published : 2017-08-05 13:08:00, Updated : 2017-08-05 13:21:31

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর বনানী থানায় করা সাধারণ ডায়েরির (জিডি) বিষয়ে মুখ খুললেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, জিডি হয়েছে এটা আমি জেনেছি। যারা এটি করেছেন আমার মনে হয় বড় আকারের একটা ভুল বোঝাবুঝি থেকে এটা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমাকে যারা এখানে হায়ার করে নিয়ে এসেছেন কাজটি করার জন্য, তারা একে অন্যের সঙ্গে যথেষ্ট ঘনিষ্ঠ। আমার মনে হয় নিজেদের মধ্যে আলোচনা করলে এ সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

গত বুধবার (০২ আগস্ট) রাজধানীর বনানী থানায় নিয়ম ভেঙে বাংলাদেশে কাজ করার অভিযোগ এনে পরমব্রত’র বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করেন টিভিকেন্দ্রিক ১৩টি সংগঠনের জোট ‘এফটিপিও’-এর সদস্য সচিব নির্মাতা-অভিনেতা গাজী রাকায়েত।

গাজী রাকায়েতের অভিযোগ, ভারতীয় অভিনেতা পরমব্রত সরকারি অনুমোদন এবং দেশের বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে কোনও রকম আলোচনা ছাড়াই বাংলাদেশের টিভি নাটকে নিয়মিত কাজ করে চলেছেন। যা মেনে নেওয়া যায় না।

তিনি বলেন, দেখুন এটা শুধু পরমব্রত’র বিরুদ্ধে না। আমরা পুরো ব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে এ জিডি করেছি। আমরা লক্ষ্য করছি গত কয়েক বছর ধরে প্রতিনিয়ত বিদেশের শিল্পীরা পর্যটন ভিসায় দেশে আসছেন এবং সবার সামনে দিয়ে শুটিং করে চলেছেন। এ নিয়ে কারও কোনও মাথা ব্যথা নেই। অথচ আমরা কিন্তু বিদেশে গিয়ে ওয়ার্ক পারমিট ছাড়া কাজ করতে পারি না। আমাদের দুঃখ এবং আপত্তির জায়গাটা এখানেই। মূলত এ কালচার থেকে বেরিয়ে আসার জন্য আমাদের আজকের জিডি।

তিনি আরও বলেন, পরমব্রতরা আমাদের অতিথি। আমরা সবসময় তাদের ওয়েলকাম জানাতে চাই। কিন্তু সেটা যেনও একটা নিয়মের মধ্যে হয়-এটুকুই দাবি করছি। আমরা তথ্যমন্ত্রণালকেও এ বিষয়ে চিঠি দিয়েছি। মন্ত্রণালয় আমাদেরকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করার কথা জানিয়েছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে নিয়মিত কাজ করছেন পরমব্রত। বর্তমানে শাহরিয়ার শাকিলের প্রযোজনায় ঢাকায় নির্মিত হচ্ছে সত্যজিৎ রায়ের ‘ফেলুদা’ সিরিজের গল্প থেকে নাটক। দেশের টেলিভিশনের জন্য নির্মিত ফেলুদা চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। সিরিজটি ঈদে প্রচারের লক্ষ্যে নির্মিত হচ্ছে।