বৃহস্পতিবার ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮, রাত ০৪:১০

লালমনিরহাট সীমান্ত: বাংলাদেশি যুবককে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ

Published : 2017-07-26 23:21:00
লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী সীমান্ত থেকে লিটন মিয়া (১৭) নামে এক বাংলাদেশি যুবককে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। লিটন পাটগ্রাম উপজেলার শ্রীরামপুর এলাকার হাফিজুর রহমানের ছেলে।
জানা যায়, গতকাল ভোরে ভারতীয় গরু ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় কয়েকজন গরু পারাপারকারীসহ গরু আনতে বুড়িমারী সীমান্তের ৮৪৩ নম্বর মেইন পিলারের ওপারে ভারতের অভ্যন্তরে অনুপ্রবেশ করে লিটন মিয়া। ভারতীয় কোচবিহার-৬১ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের
চ্যাংড়াবান্ধা ক্যাম্পের টহল দল টের পেয়ে তাদেরকে ধাওয়া করলে সঙ্গীরা পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও লিটন মিয়াকে ধরে নিয়ে যায় বিএসএফ। লিটনকে এ সময় বেধড়ক মারধর করা হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ ঘটনায় বিজিবি-বিএসএফের কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠকের প্রস্তুতি চলছিল।  
লালমনিরহাট-১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল গোলাম মোর্শেদ জানান, এ ঘটনায় বিএসএফকে কড়া প্রতিবাদ পাঠিয়ে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানানো হয়েছে।
সাপাহার সীমান্তে গরু চোরাকারবারি আটক : সাপাহার সংবাদদাতা জানান, নওগাঁর সাপাহার সীমান্তে মাহবুর রহমান (৩১) নামে এক গরু ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বিএসএফ। আটক ব্যবসায়ী উপজেলার কলমুডাঙ্গা হাটখলাপাড়ার মৃত ছাদেক আলীর পুত্র।
জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো গত মঙ্গলবার রাতের কোনো এক সময় মাহবুর বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ভারতে গরু আনতে যায়। গরু নিয়ে গতকাল ভোর সাড়ে ৪টার দিকে কলমুডাঙ্গা সীমান্ত এলাকা দিয়ে দেশে প্রবেশের সময় ভারতের আদাডাঙ্গা ৬০ বিএসএফ ক্যাম্পের টহলরত জোয়ানরা ধাওয়া করলে অন্যরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও মাহাবুর বিএসএফের হাতে ধরা পড়ে। এ বিষয়ে কলমুডাঙ্গা বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। এরপর ১৪ ব্যাটালিয়ন অধিনায়কের ফোনে কল করেও তাকে পাওয়া যায়নি। বিএসএফ আটক গরু ব্যবসায়ীকে ভারতের বামনগোলা থানায় সোপর্দ করেছে বলে স্থানীয় জনগণ জানিয়েছে। কোরবানিকে সামনে রেখে উপজেলার একশ্রেণির চোরাকারবারি ভারত থেকে গরু আনতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বলে স্থানীয়রা মনে করছেন।  উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে সাপাহার সীমান্তে ৬-৭ বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ীকে বিএসএফ আটক করেছিল।