রবিবার ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, সন্ধ্যা ০৬:২৭

প্রথম ভাষণেই বিতর্কিত ভারতের নতুন রাষ্ট্রপতি

Published : 2017-07-26 15:36:00, Updated : 2017-07-26 15:48:51

অনলাইন ডেস্ক : সদ্য নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের উদ্বোধনী ভাষণে দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর নাম না থাকায় বিতর্ক চরমে উঠেছে। কোনো রাষ্ট্রপতির ভাষণে দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রীর নাম নেই, এর প্রতিবাদ করেন কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা এবং গুলাম নবী আজাদ।

বুধবার (২৬ জুলাই) অধিবেশন শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই কংগ্রেস সংসদ সদস্যরা রাষ্ট্রপতির ভাষণের কিছু অংশ নিয়ে চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেন। অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি পাল্টা প্রতিবাদ করেন। এরপরেই সরকার পক্ষের সঙ্গে তীব্র বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন কংগ্রেস সংসদ সদস্যরা। এর ফলে সভা সাময়িকভাবে মুলতবি ঘোষণা করা হয়।

রামনাথ কোবিন্দ মঙ্গলবার (২৫ জুলাই) লোকসভায় রাষ্ট্রপতি হিসাবে প্রথম ভাষণ দেন। ভাষণে তিনি মহাত্মা গান্ধীর সঙ্গে দীনদয়াল উপাধ্যায়ের তুলনা করায় কংগ্রেস তার প্রতিবাদ করে। এদিন রাজ্যসভায় আনন্দ শর্মা বলেন, দীনদয়াল কখনোই স্বাধীনতা সংগ্রামী ছিলেন না। দেশ গঠনে তার বিশেষ কোনো ভূমিকা নেই। এমন ব্যক্তিকে বিজেপি উচ্চ আসনে বসাতেই পারে, কিন্তু তার সঙ্গে মহাত্মা গান্ধীকে তুলনা করা উচিত নয়।

তিনি প্রশ্ন তোলেন কেন রাষ্ট্রপতির ভাষণে ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরু এবং ইন্দিরা গান্ধীর নাম উল্লেখ পর্যন্ত করা হলো না? তিনি বলেন, প্রত্যেক দেশ ও সমাজ তাদের জাতীয় নেতাদের সম্মান দিয়ে থাকে। ভারতেও তেমনই করা হয়। যেমন মহাত্মা গান্ধীকে দেশের সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হয়। দেশের স্বাধীনতার জন্য জেলে গিয়েছিলেন নেহেরু। পরবর্তীকালে তিনি হন দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী। নেহেরুর নাম না নিয়ে বস্তুত তার প্রতি অসম্মান দেখানো হয়েছে।

আনন্দ শর্মার সঙ্গে একমত পোষণ করে রাষ্ট্রপতির ভাষণের নিন্দা করেন আরেক কংগ্রেস নেতা গুলাম নবী আজাদ। তিনি বলেন, রামনাথ কোবিন্দ শুধু বিজেপির রাষ্ট্রপতি নন। সারা দেশের রাষ্ট্রপতি। তার ভাষণে বল্লভভাই প্যাটেল এবং বি আর আম্বেদকরের নাম উল্লেখ করা হয়েছে অথচ নেহেরুর নাম উচ্চারণ পর্যন্ত করা হলো না!

এদিকে রাষ্ট্রপতির ভাষণ নিয়ে কংগ্রেসের রাজনীতির নিন্দা করেছে বিজেপি। অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির কংগ্রেস সাংসদের এই আচরণের জন্য সমালোচনা করেন। পাশাপাশি তিনি রাজ্যসভার কার্যবিবরণী থেকে আনন্দ শর্মার বক্তব্য মুছে ফেলার আবেদন জানান। সূত্র: কলকাতা ২৪*৭