মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, রাত ১০:১৫

বিষ্ণু দের জন্ম

Published : 2017-07-17 23:44:00, Count : 110
বিষ্ণু দে একজন বিখ্যাত বাঙালি কবি, লেখক এবং চলচ্চিত্র সমালোচক। তাঁর জন্ম ১৯০৯ সালের ১৮ জুলাই। তিনি ১৯৭১ সালে তাঁর স্মৃতিসত্তা ভবিষ্যত্ বইটির জন্য ভারতের সর্বোচ্চ সাহিত্য পুরস্কার ‘জ্ঞানপীঠ’ লাভ করেন।
বিষ্ণু দে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজিতে এমএ পাস করেন। ১৯৩৫ সালে তিনি রিপন কলেজে যোগদান করেন। এরপর প্রেসিডেন্সি কলেজ, মৌলানা আজাদ কলেজ এবং কৃষ্ণনগর কলেজেও পড়িয়েছেন। ১৯২৩ সালে কল্লোল পত্রিকা প্রকাশের মাধ্যমে যে সাহিত্য আন্দোলনের সূচনা হয়েছিল বিষ্ণু দে এর একজন দিশারী। ১৯৩০ সালে কল্লোল-এর প্রকাশনা বন্ধ হলে তিনি সুধীন্দ্রনাথ দত্তের পরিচয় পত্রিকায় যোগদান করে সম্পাদক হিসেবে কাজ করেন। ১৯৪৮ সালে চঞ্চল কুমার চট্টোপাধ্যায়ের সহায়তায় তিনি সাহিত্যপত্র প্রকাশ করেন। তিনি নিরুক্তা নামে একটি পত্রিকাও সম্পাদনা করেছেন। এ ছাড়া তিনি ছড়ানো এই জীবন নামে একটি আত্মজীবনী লিখেছেন। বিষ্ণু দে অঙ্কন শিল্পের ওপর কিছু বই রচনা করেন। যেমন আর্ট অব যামিনী রায়, দ্য পেইন্টিংস অব রবীন্দ্রনাথ টেগোর, ইন্ডিয়া অ্যান্ড মডার্ন আর্ট। তিনি ক্যালকাটা গ্রুপ সেন্টার, সোভিয়েত ফ্রেন্ডশিপ অ্যাসোসিয়েশন, প্রগতি লেখক শিল্পী সংঘ, ইন্ডিয়ান পিপলস থিয়েটার অ্যাসোসিয়েশন, ভারতীয় গণনাট্য সংঘ প্রভৃতি সংস্থার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তিনি ছবিও আঁকতেন। সাহিত্যে অবদানের জন্য বিষ্ণু দে সাহিত্য আকাদেমি পুরস্কার, নেহরু স্মৃৃতি পুরস্কার লাভ করেন। এ ছাড়া তিনি সোভিয়েত ল্যান্ড অ্যাওয়ার্ড পান। তাঁর রচিত বইগুলো হল-উর্বশী ও আর্টেমিস, চোরাবালি, পূর্বলেখ, রুচি ও প্রগতি, সাহিত্যের ভবিষ্যত্, সন্দ্বীপের চর, নাম রেখেছি কোমল গান্ধার, তুমি শুধু পঁচিশে বৈশাখ, রবীন্দ্রনাথ ও শিল্প সাহিত্য আধুনিকতার সমস্যা, মাইকেল রবীন্দ্রনাথ ও অন্যান্য জিজ্ঞাসা, ইন দ্য স অ্যান্ড দ্য রেন, উত্তরে থাকে মৌন, সেকাল থেকে একাল, আমার হূদয়ে বাঁচো।
১৯৮২ সালের ৩ ডিসেম্বর বিষ্ণু দের প্রয়াণ ঘটে।