মঙ্গলবার ২৫ জুলাই, ২০১৭, দুপুর ১২:৩৪

কাতারের গণমাধ্যমে হ্যাকিং করেছে আরব আমিরাত

Published : 2017-07-17 15:34:00, Count : 225

অনলাইন ডেস্ক : চলতি বছরের মে মাসের শেষের দিকে কাতার সরকারের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং বার্তাসংস্থায় হ্যাকিং চালিয়ে দেশটির আমিরের নামে মিথ্যা বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছিলো। ওই মিথ্যা বক্তব্যের কারণেই বর্তমানে আরব উপসাগরীয় অঞ্চল সংকটাপন্ন। আর এই হ্যাকিংয়ের আয়োজক ছিলো সংযুক্ত আরব আমিরাত। রোববার (১৬ জুলাই) যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদপত্র ওয়াশিংটন পোস্ট মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে।

ওয়াশিংটন পোস্টের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মে মাসে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আর থানিকে মিথ্যাভাবে উদ্ধৃত করে বলা হয় তিনি হামাসের প্রশংসা করেছেন এবং ইরানকে 'ইসলামিক শক্তি' বলে অভিহিত করেন। ওই ভূয়া তথ্যের কারণেই সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিশর এবং বাহরাইন সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নের অভিযোগে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছেদ এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে দিয়েছে। তবে কাতার এ সকল অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে এসেছে।

কাতার কর্তৃপক্ষ মে মাসের শেষ দিকে জানিয়েছিলো যে হ্যাকাররা আমিরের মিথ্যা বক্তব্য প্রকাশ করেছে। তবে উপসাগরীয় দেশগুলো কাতারের এই ব্যাখ্যা গ্রহণ করেনি। ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা গত সপ্তাহে তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করে জানতে পারে যে আরব আমিরাতের সরকারি কর্মকর্তারা হ্যাকিংয়ের একদিন আগে ২৩ মে এর পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করেছে।

তবে আরব আমিরাত নিজেরাই ওয়েবসাইটগুলো হ্যাক করেছে নাকি অর্থের বিনিময়ে অন্যদের দিয়ে করিয়েছে সে বিষয়টি পরিস্কার নয়। এছাড়া মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার যে কর্মকর্তা এ তথ্য প্রকাশ করেছেন তার পরিচয়ও গোপন রাখা হয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত ইউসুফ আল-ওতাইবা এক বিবৃতিতে হ্যাকিংয়ের বিষয়টি মিথ্যা বলে অস্বীকার করেছেন। সূত্র: আল-জাজিরা