মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, সকাল ০৮:০১

সুনামগঞ্জ-১ আসন: তরুণদের লড়াই বড় দুই দলে

Published : 2017-07-14 22:28:00, Count : 1579
মাহমুদুর রহমান তারেক, সুনামগঞ্জ: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সুনামগঞ্জ-১ (তাহিরপুর-জামালগঞ্জ-ধর্মপাশা) আসনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে তরুণদের সংখ্যাই বেশি। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি থেকে প্রায় অর্ধডজন প্রার্থী নির্বাচনী এলাকা চষে বেড়াচ্ছেন। রাজনৈতিক ছাড়াও সামাজিক অনুষ্ঠানগুলোতে অংশগ্রহণ করে নিজেদের প্রার্থিতা জানান দিচ্ছেন।
ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচন করার জন্য জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আক্তারুজ্জামান সেলিম দীর্ঘদিন ধরেই মাঠে আছেন। নেতাকর্মীদের সঙ্গে সব সময়ই যোগাযোগ রাখছেন তিনি। সময় ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে মাঠে-ময়দানে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন তিনি। সাবেক জনপ্রিয় এই ছাত্রলীগ নেতা এবার তৃতীয়বারের মতো মনোনয়ন প্রত্যাশী।
কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার। ছিলেন জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা নারী ফোরামের সভানেত্রী। হাওর অধ্যুষিত এই আসনটিতে নিজের অবস্থান পাকাপোক্ত করতে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে চষে বেড়াচ্ছেন তিন উপজেলা। দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে অনেকটা কোমর বেঁধেই নেমেছেন তিনি।
এই আসনে আওয়ামী লীগের আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রণজিত সরকার। মনোনয়ন প্রত্যাশী এই নেতা সভা, সমাবেশ, গণসংযোগ করছেন নিয়মিত। তার পক্ষে স্থানীয় এমপিবিরোধী আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতৃবৃন্দ কাজ করছেন। বিএনপির প্রার্থীরাও এই আসনটিতে প্রচারণায় পিছিয়ে নেই। তিন তরুণ প্রার্থী এই আসনে নির্বাচন করতে আগ্রহী। কামরুজ্জামান কামরুল জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর এবার তিনি সংসদ নির্বাচন করার জন্য মাঠে নেমেছেন। হাওরের মানুষের নানা আন্দোলন-সংগ্রামেও সোচ্চার তিনি। কৃষকবন্ধু জনপ্রতিনিধি হিসেবেও তিনি পরিচিত।  নির্বাচনে মনোনয়নের প্রত্যাশায় তিনি ইতোমধ্যে সাধারণ মানুষের সঙ্গে ব্যাপকভাবে গণসংযোগ শুরু করেছেন। তিন উপজেলার বিএনপি নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষকে নিয়ে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন।
অপর প্রার্থী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আনিসুল হক। গত বছরও তিনি মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। ইতোমধ্যে তিনি দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে নির্বাচন করার সুযোগ চেয়েছেন। তিনিও কাজ শুরু করেছেন নির্বাচনের জন্য। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মামুনুর রশিদ শান্ত একই আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনিও জোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন নির্বাচনের জন্য।
একই আসনে ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোতালেব খানও নির্বাচনের জন্য মাঠে আছেন।  বর্তমানে এই আসনটিতে সাংসদ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মোয়াজ্জেম হোসেন রতন।