মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৮, রাত ০২:৩০

দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশের প্রয়াণ

Published : 2017-06-15 22:12:00
ভারতবর্ষের রাজনৈতিক ইতিহাসে দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশ এক অবিস্মরণীয় নাম। তাঁর রাজনৈতিক মেধা, দক্ষতা আর দেশের মানুষের প্রতি অপরিসীম দরদের কারণে তিনি জনসাধারণের কাছে ‘দেশবন্ধু’ নামে পরিচিত। বাংলার মানুষের এই প্রিয় নেতা ১৮৭০ সালের ৫ নভেম্বর কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন। চিত্তরঞ্জন দাশের পূর্বপুরুষদের আদি নিবাস ছিল বিক্রমপুরের তেলিরবা গ্রামে। চিত্তরঞ্জন দাশ ব্রিটিশবিরোধী লড়াইকে জোরদার করতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পক্ষে লড়াই করেছেন। এক সময় তিনি কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গে মতবিরোধের কারণে ‘স্বরাজ দল’ নামে একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। এই স্বরাজ দলের প্রার্থী হিসেবেই ১৯২৪ সালে কলকাতা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে প্রথম মেয়র নির্বাচিত হন। এ সময়ে তিনি নারী শিক্ষা ও বিধবা বিবাহের পক্ষে অনেক কাজ করেন। 
চিত্তরঞ্জন দাশ ১৯৮৬ সালে লন্ডন মিশনারি স্কুল থেকে ম্যাট্রিক পাস করেন। ১৮৯০ সালে তিনি কলকাতা প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে বিএ পাস করেন। এরপর উচ্চ শিক্ষার জন্য বিলেতে যান। ১৮৯৩ সালে ব্যারিস্টারি পড়া শেষ করে দেশে ফিরে আইন পেশা শুরু করেন। আইন পেশার পাশাপাশি গোপনে বিপ্লবী রাজনীতিতে যুক্ত ছিলেন চিত্তরঞ্জন দাশ। 
১৯০৩ সালে কলকাতায় প্রমথ মিত্র ও চিত্তরঞ্জন দাশ ‘অনুশীলন সমিতি’ প্রতিষ্ঠা করেন। অরবিন্দ ঘোষের ‘বন্দে মাতরম’ পত্রিকার সঙ্গেও তাঁর সম্পৃক্ততা ছিল। তিনি ১৯০৬ সালে কংগ্রেসে যোগদান করেন। ১৯২৩ সালে কংগ্রেস ত্যাগ করে মতিলাল নেহরুর সহযোগিতায় স্বরাজ দল গঠন করেন। হিন্দু ও মুসলমান এই দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রীতি সাধনের জন্য তাঁর নেতৃত্বে স্বরাজ দল মুসলিম নেতাদের সঙ্গে উভয় সম্প্রদায়ের অধিকার বিষয়ে ‘বেঙ্গল প্যাক্ট’ চুক্তি সম্পাদন করেন। ১৯২৫ সালে কংগ্রেসের অধিবেশন শেষে দার্জিলিং যাওয়ার পথে ১৬ জুন ৫৪ বছর বয়সে দেশবন্ধু মারা যান। রাজনীতির মধ্যে থেকেও তিনি নিয়মিত সাহিত্যচর্চা করতেন। সে সময়ের বিখ্যাত মাসিক পত্রিকা ‘নারায়ণ’-এর প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদক ছিলেন তিনি। মালঞ্চ, সাগর সংগীত ও অন্তর্যামী গ্রন্থের জন্য তিনি কবি ও লেখক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন।