সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, 12:28
প্রধানমন্ত্রীর অধীনেই শর্ত সাপেক্ষে নির্বাচনে যেতে প্রস্তুতি বিএনপির
Published : Thursday, 12 January, 2017 at 12:00 AM, Count : 95
রেজাউল করিম লাবলু: শর্ত সাপেক্ষে প্রধানমন্ত্রীর অধীনে নির্বাচনে যাওয়ার প্রস্তাবনা তৈরি করছে বিএনপি। নির্বাচন কমিশন গঠনের পর বিএনপি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের এই প্রস্তাবনা তুলে ধরবে। প্রস্তাবনায় নির্বাচনকালীন প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা খর্ব করে শুধু রুটিন ওয়ার্ক করার শর্তে প্রধানমন্ত্রীর অধীনে নির্বাচনে যাওয়া, ইসিতে নিবন্ধিত ও অতীতে সংসদে প্রতিনিধিত্ব ছিল এমন দলের নেতাদের সমন্বয়ে সরকার গঠনসহ একাধিক প্রস্তাবনা থাকবে। তবে এসব প্রস্তাবনা প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সহায়ক সরকারের রূপরেখা তৈরির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এক নেতা এমনটা জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে জানতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি গতকাল জানান, সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনা তৈরির কাজ করছেন তারা। এখনও এগুলো খসড়া আকারে আছে। খসড়া প্রস্তাবনাগুলো নিয়ে দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটিতে আলোচনা করে চূড়ান্ত করা হবে। তারপর সুবিধাজনক সময়ে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া প্রস্তাবনা জাতির সামনে উত্থাপন করবেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই নেতা জানান, সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনা তৈরিতে সাবেক আমলা ও বর্তমানে বিএনপি নেতা, বুদ্ধিজীবীসহ বিএনপি সংশ্লিষ্ট একটি গ্রুপ কাজ করছে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীও রয়েছেন। সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনার মধ্যে যেসব প্রস্তাব থাকতে পারে সেগুলো হল : ১. ইসিতে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করা, ২. নির্বাচনের সময় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা খর্ব করে শুধু রুটিন ওয়ার্ক করার শর্তে প্রধানমন্ত্রীর অধীনে নির্বাচন, ৩. বড় দুটি রাজনৈতিক দল বিশেষ করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নির্দিষ্টসংখ্যক প্রতিনিধিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে একটি জাতীয় সরকার করা যেতে পারে।  
সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনা সম্পর্কে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী আরও জানান, সব দলের কাছে গ্রহণযোগ্য স্বাধীন ইসি গঠনের জন্য চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যে ১৩ দফা প্রস্তাবনা দিয়েছেন তা দেশে-বিদেশে গ্রহণযোগ্য হয়েছে। তেমনিভাবে নিরপেক্ষ নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের যে প্রস্তাবনাগুলো তিনি দেবেন সেগুলোও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হবে বলে আশা তার।
গত ১৮ নভেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া রাজধানীর গুলশানে হোটেল ওয়েস্টিনে নির্বাচন কমিশন নিয়ে জাতির উদ্দেশে প্রস্তাবনা তুলে ধরেন। এ সময় তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনের আগে যথাসময়ে নিরপেক্ষ নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা দেবেন। কারণ একটি নিরপেক্ষ নির্বাচনকালীন সরকার ব্যতীত সুষ্ঠু, অবাধ ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব নয়। নির্বাচন কমিশন যাতে একটি সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন জাতিকে উপহার দিতে পারে সেই উদ্দেশ্যেই একটি নিরপেক্ষ নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের প্রয়োজন।
এর আগে ২০১৪ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই মাসে আগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া তত্কালীন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে গণভবনে সাক্ষাত্ করে নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা দিয়েছিলেন। সরকার ওই রূপরেখা নাকচ করে দিলে বিএনপি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জন করে।
নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা তৈরির বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন জানান, ইতোমধ্যে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ঘোষণা দিয়েছেন, বিএনপির পক্ষ থেকে সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনা দেবেন। সে অনুযায়ী কাজ চলছে। সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনা তৈরিতে খুব একটা সময় লাগবে না। তবে তার আগে বিএনপি দেখতে চায়, ইসি গঠনে যে প্রস্তাবগুলো দেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে সরকার কী পদক্ষেপ নেয়। ইসি গঠনের পরই সহায়ক সরকারের রূপরেখা দেবে বিএনপি।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : কমলেশ রায়
প্রকাশক রোমো রউফ চৌধুরী কর্তৃক সকালের খবর ভবন (৮ম ও ৯ম তলা), ২৫ কমরেড মনি সিংহ সড়ক (৬৮ পুরানা পল্টন), ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত।, দৈনিক সকালের খবর পাবলিকেশনস লিমিটেড, ১৫৩/৭ তেজগাঁও বা/এ, ঢাকা-১২০৮ হতে মুদ্রিত, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক দফতর : ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক সকালের খবর, ২০১৬
ফোন : +৮৮-০২-৮১৭০৫৬৮-৭০, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৮১৭০৫৭২
ই-মেইল : Print : dsknews@shokalerkhabor.com, Online : onlinenews@shokalerkhabor.com